এই দেশের নারীরা খুব আকর্ষণীয় ও সুন্দর হয়ে থাকে। এই দেশে জন্ম নেওয়া প্রতিটি নারী তুলনামূলকভাবে লম্বা হয়ে থাকে

নিউজ ডেস্ক- খ্রিস্ট ধর্ম ব্যতীত অন্য কোন ধর্মকে জাতীয় ধর্ম বলে স্বীকৃত দেয়না। মধ্য ইউরোপের অবস্থিত একটি স্থলবেষ্টিত রাষ্ট্রস্লোভাকিয়া। দেশটির রাজধানী ও বৃহত্তম শহর ব্রাতিস্লাভা। এখানকার জনসংখ্যা প্রায় 50 লাখ এর মত।স্লোভাকিয়ার উত্তর-পশ্চিমে চেক প্রজাতন্ত্র, উত্তরে পোল্যান্ড, পূর্বে ইউক্রেন, দক্ষিণে হাঙ্গেরি এবং দক্ষিণ-পশ্চিমে অস্ট্রিয়া। স্লোভাক দেশটির সরকারি ভাষা।

স্লোভাকিয়া দেশের কিছু অজানা ও মজাদার তথ্য হলো

1. স্লোভাকিয়া একটি উন্নত দেশ। দেশটিতে বসবাস করা মানুষ বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকে। এখানে 26 বছর বয়স পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের বাস বা ট্রেনে ভাড়া দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। 

2. স্লোভাকিয়া দেশের রাজধানী এমন জায়গায় অবস্থিত যেখানে রয়েছে তিনটি দেশের সংযোগস্থল। 

3. স্লোভাকিয়ায় দেখা যায় এক বিশেষ ধরনের চার্চ। যা সাধারণত কাঠ দিয়ে তৈরি। এই দেশে প্রায় 50 টিরও বেশি কাঠের তৈরি চার্চ রয়েছে। ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি।

4. এই দেশে রয়েছে 6 হাজারেরও বেশি গুহা। পুরো ইউরোপ মহাদেশের মধ্যে স্লোভাকিয়া দেশ  যেখানে সর্বপ্রথম গুহার সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে আলোর ব্যবহার করা হয়েছিল। 

5. স্লোভাকিয়ার বেশিরভাগ মানুষ খ্রিস্টান হলেও এখানে অল্প সংখ্যক ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী মানুষ রয়েছেন। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হলো এখানে কোনো মসজিদ নেই। এই দেশে বহু সংখ্যক চার্চ দেখা গেলেও এখানে একটি ও মসজিদ দেখা যাবে না। এই দেশে 2016 এক আইন পাস করা হয় এই আইন অনুযায়ী বলা হয় খ্রিস্ট ধর্ম ব্যতীত অন্য কোন ধর্মকে জাতীয় ধর্ম বলে স্বীকৃত হবেই না। 

6. স্লোভাকিয়া দেশটিতে স্বাস্থ্যব্যবস্থা বেশ অনুন্নত। একটি রিপোর্ট অনুযায়ী দেখা যায় পুরো ইউরোপের মধ্যে হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে স্লোভাকিয়ার মানুষেরা বেশি মারা যায়। 

7. এই দেশের নারীরা খুব আকর্ষণীয় ও সুন্দর হয়ে থাকে। এই দেশে জন্ম নেওয়া প্রতিটি নারী তুলনামূলকভাবে লম্বা হয়ে থাকে। এবং এখানকার মেয়েরা খুব অল্প বয়সে বিবাহ করে নেয়।

8. স্লোভাকিয়া একটি উন্নত দেশ হলেও পুরো ইউরোপের মধ্যে স্লোভাকিয়ায় বেকারত্বের হার বেশি। এখানে প্রায় 11 শতাংশ মানুষ বেকার। 

9. এই দেশটির মধ্যেই স্থানীয় লোকগীতি ও লোকনৃত্য খুবই জনপ্রিয়। 

10. পুরো বিশ্বের মধ্যে স্লোভাকিয়ার প্রথম দেশ যেখানে সর্বপ্রথম লোকস্থপতি সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.