কোথায় কোথায় ব্যবহার করা যায় কর্পূর? 

নিউজ ডেস্ক:  কর্পূর হল পুজোর ঘরে একটি অতি পরিচিত সামগ্রিক।তাই পুজোর কর্পূরের এর ব্যবহার সবাই জানে।কিন্তু কর্পূরের নিজস্ব কিছু আছে যা বেশিরভাগ মানুষেরই অজানা। পুজো কাজ ছাড়াও কর্পূর আরো অনেক কাজে ব্যবহার করা যায়। কোথায় কোথায় ব্যবহার করা যায় কর্পূর? 

১) পিঁপড়ে তাড়াতে কর্পূর- বাড়িতে কি খুব   পিঁপড়ের উপদ্রব হয়েছে? পিঁপড়ের তাড়ানোর জন্য অন্য কিছু খোঁজার দরকার নেই হাতের কাছে কর্পূর থাকলেই হবে। এক কাপ জলে মধ্যে ২-৩টি কর্পূর মিশিয়ে জলটি সারা ঘরে ছিটিয়ে দিন।  তাহলেই দেখবেন পিপড়ের উপদ্রব কমে গেছে।

২) ত্বকের সমস্যায় কর্পূর-  কর্পূর ত্বকের সমস্যায় যেমন  চুলকানি ও ব়্যাশের ইত্যাদি থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করে।তাই যদি ত্বকে চুলকানি বা ব়্যাশ হয় তাহলে অল্প  জলের মধ্যে এক টুকরো কর্পূর মিশিয়ে নিয়ে সেই স্থানটি ওই জল দিয়ে ধুয়ে নিন। কিন্তু যদি  শরীরে কোথাও ক্ষত থাকে তাহলে সেখানে  কর্পূর ব্যবহার করবেন না। এতে উপকারে বদলে ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

৩) মশা তাড়াতে কর্পূর-মশা তাড়াতে কর্পূরের জুড়ি মেলা ভার।তাই ঘরের মধ্যে মশা উপদ্রব হলে ঘরের কোণায় কোণায়  কর্পূর ছড়িয়ে দিন। এর ফলে মশা চলে যাবে। 

৪) শিশুর বুকে কফ জমলে- শিশুদের যদি বুকে কফ জমা  তাহলে পরিমাণ মতো সর্ষের তেল নিয়ে তার মধ্যে  কর্পূর মিশিয়ে গরম করে  বুকে পিঠে ভালো করে মালিশ করুন।এতে সর্দি-কাশি থেকে ভালো উপকার পাবেন। 

৫) চুল পড়া রোধে ও খুশকির সমস্যা দূর করতে কর্পূর- কর্পূর চুলের সমস্যা যেমন   চুল পড়া, খুশকি ইত্যাদি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতেও বিশেষভাবে কার্যকরী।এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত  কর্পূর এসেন্সিয়াল অয়েল দিয়ে মাথায় মাসাজ করুন।এতে উপকার পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.