রান্না ঘরে জল এবং আগুনকে কেন পাশাপাশি রাখতে না করা হয়?

নিউজ ডেস্কঃ ফেংশ্যুই। অনেকে মেনে চলেন আর অনেকে মেনে চলেন না। আবার অনেকে সেভাবে মানেন না। তবে অনেকের মতেই এটি বিরাট ফলদায়ক।

বাড়িতে মূল বা সদর দরজার বাইরে কোনও জুতো বা চটি পড়ে থাকা বাঞ্ছনীয় নয়। যদি সম্ভব হয় সরিয়ে রাখুন।মূল দরজার সামনেটা মুক্ত ও পরিষ্কার রাখুন। এতে বাতাসে ভেসে আসা শক্তি আপনার ঘরে ঢুকতে বাঁধা পায়।

বাড়ির প্রধান দরজা যেন বাথরুমের সমনে না হয়। কারন বাথরুমে এই ফেংশুই মতে একটি মেতি চিহ্নিত স্থান। যদি থাকে তাহলে সদর দরজা ও বাথরুমের মাঝখানে কোনও শক্তি বেড়া বা প্রাচীর দেওয়া যেতে পারে।তবে পর্দা দিয়ে কাজ চলবে না।

বাড়িতে একই সারিতে তিনটি দরজা রাখবেন না।ফেং শুই অনুযায়ী এটি একটি মারাত্মক দোষ।কারন এই দরজাগুলি দিয়ে ‘চি’ প্রবলভাবে প্রভাবিত হয় এবং একদম শেষের ঘরের লোকেরা এই দোষের জন্য ভীষনভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।এই দোষ খন্ডনের উপায় হল মধ্যের দরজাটি হল লাইনে না রেখে এক পাশে একটু সরিয়ে দেওয়া।

রান্নাঘরে জল ও আগুন কখনই পাশাপাশি রাখবেন না।কারন জল ও আগুন হল একে অন্যের বিরোধী।এই বিরোধী উপাদান দুটি ধ্বংসাত্মক চক্রের স্পষ্ট প্রমান।

ছুরি, কাচি এগুলো অশুভ উপহার।তাই কাউকে কখনো কোনো ধারালো জিনিস উপহার দেবেন না।কারন এর থেকে নির্গত প্রতিকুল শক্তির বন্ধুত্বের মধ্যে বিরোধ আনে এবং মধুর সম্পর্ক তিক্ত হয়।

আপনার বাড়ির পশ্চিম দিক শিশু ও সৃজনশীলতার সঙ্গে জড়িত।আপনি যদি এইদিকের দেওয়ালে বাচ্চাদের ছবি রাখেন তবে তাদের শক্তি ও সৌভাগ্যকে উন্নত করবে। আপনার যদি নিজস্ব অফিস থাকে তাহলে আপনার নিজের ফটো লাল বর্ডার দেওয়া সুন্দর ফ্রেমে বাধিয়ে আপনার অফিসের দক্ষিন দিকে লাগাতে ভুলবেন না।আপনার সুনাম ও সদিচ্ছা বৃদ্ধি করার এটি একটি শুভ ইঙ্গিত।কারন দক্ষিন দিকের উপাদান হল আগুন আর তার সঙ্গে জড়িয়ে থাকে যশ বা প্রতিষ্ঠার সম্ভাবনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.