খালি পেটে চা খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা যায়। চায়ের ক্ষতিকারক দিক গুলি জেনে রাখুন

ওয়েব ডেস্কঃ চা বাঙালির জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ । সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে যতক্ষণ না পেটে চা যাচ্ছে ততক্ষণ যেন দিনের শুরুটা ঠিক মতো হয়না । অনেকের তো আবার দিনে চার-পাঁচবার চা না পেলে দিন ই কাটতে চায় না ।সুস্বাদু এই পানীয়টি শরীরে অফুরন্ত এনার্জি যোগান দিয়ে মনকে করে তোলে তরতাজা ।তবে অতিরিক্ত পরিমাণ চা প্রতিদিন খাওয়া শুরু করলে দেখা যায় বেশ কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ।বিশেষত খালি পেটে বারবার চা খাওয়া কিন্তু একবারে ই উচিত না ।অথচ আমরা অনেকেই কিন্তু খালি পেটে বারবার চা খেয়ে থাকি রোজ অভ্যাসবসত।আসুন জেনে নিই চা খাওয়া থেকে শরীরে কি কি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে।

১. খালি পেটে চা খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা যায় অনেকের। বিশেষত হজমের সমস্যা থাকলে খালি পেটে চা খাওয়ার এই অভ্যাস থেকে আলসার পর্যন্ত  হতে পারে। কারণ চা খেলে স্বাভাবিকভাবেই পেটের খিদে নষ্ট হয়ে যায় ,ফলে চা খাওয়ার পর অনেকেই দীর্ঘ সময় খালি পেটে থাকে। আর এই খালি পেট গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা আরো বাড়িয়ে দেয় ।

২. চায়ের মধ্যে থাকে ট্যানিন।আর প্রত্যেকদিন অতিরিক্ত পরিমাণে চা গ্রহণ করলে শরীরে ট্যানিন প্রবেশ করে অনেকের মধ্যেই বমি করার প্রবণতা সৃষ্টি করে।

৩. আপনি যদি প্রায় ই এসিডিটি তে ভুগে থাকেন তা হলে খালি পেটে চা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। যেকোনো চা বিশেষত দুধ চা বা লেবু চা এসিডিটির সমস্যা আরো বাড়িয়ে তোলে।প্রতিদিন অতিরিক্ত মাত্রায় চা খালি পেটে খেলে পেট ফাঁপা,পেটে অস্বস্তির মত সমস্যা হয়ে উঠতে পারে নিত্যদিনের সঙ্গী ।

৪. আপনার যদি অতিরিক্ত  চা খাওয়ার অভ্যাস থাকে তবে, তা অবিলম্বে বন্ধ করা দরকার কারণ অতিরিক্ত চা শরীরের অন্যান্য পুষ্টিকর খাদ্য গুলির কাজ বন্ধ করে দেয় ফলে শরীরে প্রোটিনের কাজ করার ক্ষমতা কমে যায় ।

৫. আমাদের মধ্যে অনেকেই মনে করে সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে গরম চা খেলে তা পেট পরিষ্কার করতে সাহায্য করে ।কিন্তু জানেন কি তা আসলে ঠিক নয় ?চায়ে থাকে থিওফিলআইন নামক এক রাসায়নিক ।এই রাসায়নিক অতিরিক্ত মাত্রায় গ্রহণ করলে কোষ্ঠকাঠিন্য জাতীয় সমস্যা দেখা যায়।

৬. চায়ে থাকে ক্যাফেইন।যা আমাদের শরীরে এনার্জি সৃষ্টি করে তবে এই ক্যফেইন যদি অত্যাধিক পরিমানে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে তবে তা থেকে মূত্র বর্ধক নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে ।

৭. রোজকার কর্মব্যস্ত জীবনে অল্প পরিমাণ ক্যাফেইন আমাদের সকলেরই প্রয়োজন হয় তবে খেয়াল রাখা দরকার যাতে চা এর পরিমাণ বেশি না হয়ে যায়। কারণ এই ক্যাফেইন এর মাত্রা শরীরে বেশি হলে ঘুমের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে ।

৮. গর্ভাবস্থায় চা পুরোপুরিভাবে বর্জন করা উচিত কারণ এই অবস্থায় চা খেলে তা গর্ভপাতের সম্ভাবনা বেশ কিছুটা বাড়িয়ে দেয় ।

৯. অতিরিক্ত পরিমাণ চা গ্রহণ করা আমাদের কারোর শরীরের পক্ষেই ভাল না ।তবে,বিশেষত পুরুষদের এই ব্যাপারে আরও সচেতন হওয়া উচিত কারণ অতিরিক্ত পরিমাণ চা থেকে প্রোস্টেট ক্যান্সারের সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে পুরুষদের ।

১০. চা এর মধ্যে থাকা ক্যাফেইন এক ঝটকায় আমাদের মন ভালো করে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।তবে হার্টের প্রবলেম থাকলে চা এড়িয়ে যাওয়াই ভালো কারণ এটি আমাদের শরীরকে করে তোলে অস্থির।সেই সঙ্গে রক্ত সঞ্চালন ব্যবস্থায় অসুবিধার ও সৃষ্টি করে এটি ফলে হৃদযন্ত্রের ওপর এর প্রভাব পড়ে।

অতিরিক্ত পরিমাণ চা খাওয়ার বেশ কিছু প্বার্শপতিক্রিয়া আছে ঠিক ই। তবে, এগুলো পড়ে ভয় পাবেন না অযথা। প্রতিদিন যদি নির্দিষ্ট মাত্রায় চা পান করেন আপনি তবে শরীর থাকবে সুস্থ ও এনার্জি তে ভরপুর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.