ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। মধুর অসাধারন ২০ উপকারিতা

এ এন নিউজ ডেস্কঃ প্রাচীনকাল থেকে মধু মানুষ প্রাকৃতিক খাদ্য হিসাবে, মিষ্টি হিসাবে, চিকিৎসা ও সৌন্দর্য চর্চাসহ নানাভাবে মধু ব্যবহার করে আসছে। শরীরের সুস্থতা মধুর উপকারিতা অনেক। এই উপকারিতাগুলি হল-

হৃদরোগ প্রতিরোধ করে। রক্তনালি প্রসারনের মাধ্যমে রক্ত সঞ্চালনে সহায়তা করে এবং হৃদপেশীর কার্যক্রম বৃদ্ধি করে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

দাঁত পরিষ্কার ও শক্তিশালী করে।

দৃষ্টিশক্তি ও স্মরণশক্তি বৃদ্ধি করে।

মধুতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্ষমতা, যা দেহে নান ঘাত প্রতিঘাতের হাত থেকে রক্ষা করে বার্ধক্য ঠেকাতে সাহায্য করে।

মধুর ক্যালোরি রক্তের হিমোগ্লোবিনের পরিমান বাড়ায় এবং ফলে রক্তবর্ধক হয়।

আন্ত্রিক রোগে উপকারী। মধুকে এককভাবে ব্যবহার করলে পাকস্থলীর বিভিন্ন রোগের উপকার পাওয়া যায়।

দুর্বল শিশুদের মুখের ভিতর পাচনশীল ঘা-এর জন্য খুবই উপকারী।

মধু কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

শরীরের বিভিন্ন ধরনের নিঃসরণ নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করে এবং উষ্ণতা বৃদ্ধি করে।

ভিটামিন বি কমপ্লেক্স এবং ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ মধু স্নায়ু এবং মস্তিষ্কের কলা সুদৃঢ় করে।

রক্ত পরিশোধন করে।

ক্ষুধা, হজমশক্তি ও রুচি বৃদ্ধি করে।

যারা রক্ত স্বল্পতায় বেশি ভোগে বিশেষ করে মহিলারা, তাদের জন্য নিয়মিত মধু সেবন অত্যন্ত ফলদায়ক।

শিশুদের প্রতিদিন অল্প পরিমাণ মধু খাওয়ানোর অভ্যাস করলে তার ঠাণ্ডা,কাশি,জ্বর প্রভৃতি সহজে হয় না।

শরীর ও ফুসফুসকে শক্তিশালী করে।

জিহ্বার জড়তা দূর করে।

মধু মুখের দুর্গন্ধ দূর করে।

বাতের ব্যাথার উপশম করে।

মাথা ব্যাথা দূর করে।

শিশুদের দৈহিক গঠন ও ওজন বৃদ্ধি করে।

কাশি, হাঁপানি এবং ঠাণ্ডাজনিত রোগে বিশেষ উপকার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.