নামের প্রথম অক্ষর দিয়েই জেনেনিন ভবিষ্যৎ

নিউজ ডেস্ক  – অধিকাংশ মানুষ কৌতুহলী থাকে যে তাদের আগামী দিন কেমন যাবে। ফের ক্ষেত্রে যারা জ্যোতিষশাস্ত্রের সাহায্যে নিজের হাত দেখি গণনার পদ্ধতি বেছে নেয়। কিন্তু এবার থেকে জ্যোতিষশাস্ত্রের প্রয়োজন হবে না কারণ এখন থেকে নেমে অ্যাস্ট্রোলজির মাধ্যমে কোন মানুষ তার আগামী জীবন এবং জীবনসঙ্গী নির্মাতা অনায়াসেই জেনে নিতে পারবে। মানুষের ভবিষ্যৎ সুকুমার হবে নাকি দুর্গম হবে তা জানা যাবে নেম অ্যাস্ট্রোলজির পদ্ধতিতে। 

নেম অস্ট্রলজি জানাচ্ছে এন থেকে এস অক্ষরের মধ্যে যাদের নাম শুরু তারা অন্যদের তুলনায় একটু আলাদা এবং বিরল গুণের অধিকারী। যেমন –

১)  N  –  যে সকল ব্যক্তিদের নাম এন অক্ষর দিয়ে শুরু হয় তারা একটু ব্যতিক্রমী চিন্তাভাবনার মানুষ হয়। অর্থাৎ এরা সৃজনশীল ও মৌলিক প্রকৃতির হয়ে থাকে। এন অক্ষরের ব্যক্তিদের মতামত এর দিকে এক প্রবল ইচ্ছা থাকে। ইনারা নিজেদের  একটি নিয়মানুবর্তী তালিকার মাধ্যমে ফেলে জীবনযাপন করতে পছন্দ করেন।  সেক্ষেত্রে প্রত্যহ দিনের অভিজ্ঞতা গুলি  একটি ডায়েরির মধ্যে লিপিবদ্ধ করে রাখেন এরা। এদের প্রেমের মাধ্যমে জীবনে জীবনসঙ্গীর প্রবেশ করতে পারে।  

২) O –   এই সকল ব্যক্তিরা বরাবরই একটি সীমাবদ্ধতা নিয়ম শৃংখলার মধ্যে থাকতে পছন্দ করেন। ঈদের আধ্যাত্বিক বিশ্বাস ইচ্ছা শক্তির মতোই শক্তিশালী। এরা মনের দিক থেকে ভীষণভাবে আগ্রহী প্রকৃতির হয়।  এদের মনোভাব একটু স্পর্শকাতর হওয়ার কারণে সবকিছু খুব গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করতে পারে। তবে ঈর্ষা ও চেতনার পক্ষে বিষয়ক সমস্যা হতে পারে তাই সেই দিক থেকে সতর্ক থাকতে হবে না হলে সন্দেহবাতিকের চিন্তাধারা গ্রাস করতে পারে। 

৩) P  – যে সকল ব্যক্তিদের নামের শুরুতে অক্ষর রয়েছে তারা সবার থেকে দূরত্ব বজায় রেখে চলতে পছন্দ করেন।  এদের ব্যক্তিত্ব থেকে বহু মানুষই প্রভাবিত হয়ে থাকে।  ইরানের বুদ্ধিমান কিংবা বুদ্ধিমতী হয় এবং সবার একটা বস্তুগত ধারণা তৈরি করে নেয়। তবে এই সকল ভিত্তিতে একটু কান পাতলা থাকে সেক্ষেত্রে সংযত হয়ে চলার টা খুবই জরুরী। এছাড়াও এদের উদারতা ভালোর লক্ষণ। 

৪) Q –   এক কথায় বলতে গেলে এই সফল ব্যক্তিরা টাকা মানিব্যাগ।  এদের আর্থিক স্বচ্ছলতা অধিক গুণ থাকে কিন্তু এভাবে কারণে আর্থিক পতন ঘটতে পারে।  জন্ম থেকেই এরা নেতৃত্ব দানের পাশাপাশি অন্যকে প্রভাবিত করতে সক্ষম।  অথচ নিজে তার খুব একটা সহজ ও প্রভাবিত হয় না।  এর একটু চাপা প্রকৃতির হওয়ার কারণে বহু মানুষে এদের নিয়ে মশকরা করে থাকে। তবে এরা চাইলেই নিজের মনের কথা খুব খোলামেলা পদ্ধতির মাধ্যমে অন্যকে জানাতে পারে। 

৫) R –  যাদের নামের শুরু আর দিয়ে তারা গভীর ভাবে সব কিছু অনুভব করতে সক্ষম।  এদের কাজ করার প্রতি একাগ্রতা ও একনিষ্ঠতা দেখা যায়। এই সকল মানুষরাও ওয়ার্ক এথিকস   অনুসরণ করে নিজেদের কাজ করে এবং সম্পূর্ণ শক্তি প্রয়োগ করে সেটি সম্পন্ন করে থাকে। তবে সে ক্ষেত্রে যে কোন কাজ করার সময় ব্যালেন্স রক্ষা করে চলতে হবে কারণ অন্যরা নিজেদের দিকে এই সকল গুণ টেনে নিতে পারে। সে ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। তবে এটা হৃদয়ের দিক থেকে দয়ালু প্রকৃতির হয়।  

৬)  S –  এই ব্যক্তিদের ব্যক্তিত্বের মধ্যে রয়েছে ভীষণ আকর্ষণীয় শক্তি। যার কারণে এদের হৃদয় মনোভাব উষ্ণ অভিনীত থাকার কারণে এরা সবাইকে গভীরে টেনে নিয়ে যেতে পারে।  তবে এদের প্রতি হিট গান তো সাবধানে বিবেচনা করতে হবে।  কারণ অন্যদের মধ্যে নাটক নিও মনোভাব থাকে তাই সচেতন হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। এছাড়াও এদের ভাবাবেগ এক এক সময় এক এক মাত্রায় থাকার কারণে সকলের থেকে সচেতনতা অবলম্বন করে চলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.