চুল পড়ার সমস্যা রোধ করতে। পান পাতার অসাধারন ৪ টি কাজ

নিউজ ডেস্কঃ রূপচর্চা থেকে চুলের যত্ন সব ক্ষেত্রেই এই পাতার উপকারিতা অপরিসীম।এই একটি পাতা আমাদের শরীরের উপকারের পাশাপাশি ত্বক ও চুলের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দূর করতে বিশেষভাবে সাহায্য করে।তাই বলা যায় যে বহুমুখী গুণ সম্পূর্ণ এই পাতা ত্বক এবং চুলের যত্নের এর জুড়ি মেলা ভার।তাই ত্বক এবং চুলের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দূর করতে এবং সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে ব্যবহার করুন পান পাতা।এবার জেনে নিন ব্যবহারের পদ্ধতি-

চুল পড়ার সমস্যা রোধ করতে- বর্ষাকাল আর চুল পড়ার সমস্যা থাকবেন সেটা ভাবায় যায় না।কিন্তু এই বর্ষায় চুল পরার সমস্যা দূর করুন।কিন্তু কিভাবে এটায় তো ভাবছেন? এই সমস্যা দূর লাগবে মাত্র দুটি উপকরন- পান পাতা এবং নারকেল তেল।প্রথমে পান পাতাটিকে বেটে নিন। তারপর একটি পাত্রে  নারকেল তেল নিয়ে তাতে ওই পান পাতা বাটা দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।এরপর ওই মিশ্রনটিকে ভালো করে মাথার ত্বকে লাগিয়ে মালিশ করে রেখে দিন ১ ঘণ্টার জন্য।তারপর  শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।এটি  সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন ব্যবহার করুন।এর উপকারিতা আপনারা নিজেরায় বুঝতে পারবেন।এতে অতিরিক্ত চুল ঝরার সমস্যাও দূর হওয়ার পাশাপাশি নতুন চুলও গজাবে।

অ্যালার্জির সমস্যা দূর করতে- যাদের অ্যালার্জির সমস্যা আছে তারা এক পাত্রে ৮ থেকে ১০টা পান পাতা নিয়ে তাতে জলে  দিয়ে  ফুটিয়ে নিন।তারপর ওই জল আপনাদের স্নানের জলের সঙ্গে মিশিয়ে স্নান করুন। এতে দেখবেন আপনাদের অ্যালার্জি সমস্যা দূর হবে।এছাড়াও র‍্যাশ বা এই সব  জাতীয় ত্বকের সমস্যা অনেক কমে যাবে।

ব্রণ-ফুসকুড়ির সমস্যায় পান পাতা

ত্বকের সমস্যাগুলির মধ্যে একটি অন্যতম সমস্যা হল ব্রণ ও ফুসকুড়ির সমস্যা।আর এই সমস্যা দূর করতে পান পাতার জুড়ি মেলা ভার।কারন এই পাতা উপস্থিত  অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান ত্বকের ব্রণ, ফুসকুড়ির সমস্যা দূর করতে কার্যকারী। তাই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে একটি পাত্রে পান পাতা সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে বেটে নিন।তারপর ওই মিশ্রণটি যেখানে  ব্রণ, ফুসকুড়ি আছে সেখানে লাগিয়ে রেখে দিন।এর উপকারিতা আপনারা নিজেরায় বুঝতে পারবেন। 

শরীরের দুর্গন্ধ দূর করতে পান পাতা

শরীরের দুর্গন্ধ দূর করতে পান পাতা সাহায্য করে।কারন এই পাতার রস শরীরে দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াকে বাড়তে দেয় না।তাই এই সমস্যা দূর করতে স্নানের জলে পান পাতার রস মিশিয়ে স্নান করতে পারেন।এছাড়াও  নিয়মিত পান পাতা দিয়ে ফোটানো জল খেতে পারে এতে এটি শরীর থেকে দূষিত পদার্থ (টক্সিন) বের করতে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.