পৃথিবীতে এমন একটি অদ্ভুত চিড়িয়াখানা আছে  যেখানে খাঁচায় বন্দী বন্যজন্তুরা নয় সেখানে  খাঁচায়  বন্দী  মানুষ

নিউজ ডেস্ক: চিড়িয়াখানা যেখানে ছুটির আমেজে সহস্র মানুষের ভিড় করে বিভিন্ন ধরনের খাঁচায় বন্দি পশুপাখিদের দেখার জন্য। এইরকম দৃশ্য দেখে আসছে বহু বছরে ধরে।আচ্ছা এবার ভাবুন তো যদি এর উল্টো দৃশ্য দেখা যেত অর্থাৎ মানুষ খাঁচায় বন্দী আর চারপাশে অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছে বন্যজন্তুরা। তাহলে কি হত।ব্যাপার একটু অদ্ভুত শোনাচ্ছে না কিন্তু এটা বাস্তব। পৃথিবীতে এমন একটি অদ্ভুত চিড়িয়াখানা আছে  যেখানে খাঁচায় বন্দী বন্যজন্তুরা নয় সেখানে  খাঁচায়  বন্দী  মানুষ।

এই  অদ্ভুত  চিড়িয়াখানাটির নাম হল লেহে লেদু ওয়াইল্ডলাইফ।যেটি চীনে অবস্থিত।  পৃথিবীর সবথেকে অদ্ভুত এই চিড়িয়াখানাটিতে  বুনো জন্তুরা যেমন বাঘ এবং চিতা বাঘের মত জন্তুরা একেবারে মুক্তভাবে ঘোরাফেরা করতে পারে। অন্যদিকে এখানে মনুষজনরা থাকে খাঁচার মধ্যে বন্দী। কিন্তু কোনো ভাবে মানুষকে শাস্তি দেওয়ার জন্য তৈরি করা হয়নি এরকম  চিড়িয়াখানা। চিড়িয়াখানার আধিকারিকরা জানাচ্ছেন যে, মানুষরা যাতে একেবারে চোখের সামনে থেকে বন্য জন্তুদের ঘোরাফেরা করতে দেখতে পায়, এর জন্যই তাদেরকে খাঁচার মধ্যে বন্দী করে একেবারে বন্য জন্তুদের সামনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

 ২০১৫ সালে এই অদ্ভুত ধরণের চিড়িয়াখানাটি খোলা হয়েছিল। চীনের এই অদ্ভুত চিড়িয়াখানাতে  মানুষজনের চারপাশে অবাধে বিচরণ করতে দেখা যায়  বনের সবথেকে ভয়ঙ্কর কিছু হিংস্র জীবজন্তুরা।দেখতে পাওয়া যাবে  চোখের সামনে থেকে বাঘকে  জিরাফ এবং অন্যান্য বন্য পশুদের।

এই চিড়িয়াখানায় নিজের হাতে  খাবার খাওয়ানো যায় বন্য পশুদের। তবে অবশ্যই খাবারের গুণমান ভালো হওয়া উচিত। কিন্তু এখানের সব জীব  মানুষের সাথে ভালো ব্যবহার করে না। এমন কিছু জীব রয়েছে যারা মানুষদের খুব একটা পছন্দ করে না। তাই তারা  ওত পেতে বসে থাকে  পর্যটকদের শিকার করার জন্য । কিন্তু এই সম্পূর্ণ জায়গাটি পুরোপুরি তার দিয়ে বাঁধা থাকায় বন্য জন্তুর আক্রমণ করলেও মানুষদের তেমন কোন ক্ষতি হয় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.