কোন দেশের মাছ মানুষের মাংস খেতে বেশী পছন্দ করে?

নিউজ ডেস্ক কম বেশী সকলেই মানুষখেকো মাছ বলতে প্রথমেই যার নাম মাথায় আসে সেটি হল তিমি মাছ। তবে তিনি মাছ ছাড়াও পৃথিবীতে এমন একটি প্রজাতির মাছ রয়েছে যাদের খাদ্য তালিকার প্রথম স্থান পায় মানুষ। মানুষের রক্তের একবার স্বাদ পেলেই সেই ব্যক্তির জীবন ফিরিয়ে নিয়ে আসা বেজায় কষ্ট দায়ক। এসকল মাছের নাম হলো পিরানহা। বিশেষত এই সম্প্রদায়ের মাছ দেখতে পাওয়া যায়  দক্ষিণ আমেরিকা, উত্তর আমেরিকা ও আফ্রিকার সামুদ্রিক অঞ্চলে। 

সবিস্তারে বলতে গেলে মানুষখেকো এই মাছ গুলির  আছে ধারালো দাঁত ও অত্যন্ত শক্ত চোয়াল যার কারণে যেকোনো কিছুই খুব দ্রুত কামড়ে খেতে পারে এরা। তাছারা দেহের দুপাশ থেকে শক্তকরে চেপে থাকা মাংসপেশী মাছটিকে আরো অনেক বেশি হিংস্র করে তুলেছে। এদের চোখ অনেক বড়। যার কারণে এরা খুব সহজেই শিকার খুঁজে বের করতে পারে এবং শিকার কোনভাবেই এদের চোখকে ফাঁকি দিতে পারে না। ক্ষিপ্রগতি এবং আক্রমণাত্মক আচরনের কারণে বিজ্ঞানীরা এই মাছের নাম দিয়েছে ‘রাক্ষুসে মাছ’। তবে এই মানুষখেকো মাছগুলি যতোটাইনা হিংস্র তার থেকে বেশি রূপ রয়েছে তার। রূপের দিক থেকে শিরোনামের প্রথম স্থানের অধিকারী এই মাছগুলি। যার কারণে অনেক সৌখিন মানুষ তাদের অ্যাকুরিয়ামে পিনহার মাছ রাখতেও পছন্দ করেন। কারণ আকার আয়তনের দিক থেকে মাত্র ১২ ইঞ্চি লম্বা হয় মাছ গুলি এবং এদের জীবনকালের সময়সীমা ১০ বছর পর্যন্ত হয়। 

পিরহানার হিংস্রতায় জন্য তাদের নিয়ে একটি চলচ্চিত্র বানিয়েছেন হলিউডের ফিল্ম ‌ইন্ডাস্ট্রি। এছাড়াও শুধুমাত্র সিনেমা জগতেই নয় বাস্তবেও এমন কয়েকটি উদাহরণের মাধ্যমে নিজেদের হিংস্রতার ছাপ রেখেছে এই পিরহানার দল। সেই ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যাবে ১৯৮১ সালে আমাজনের খুব কাছে ব্রাজিলের একটি স্টিমার যাচ্ছিল যার মধ্যে ছিলো ৫২০ জন পণ্য ব্যবসায়ী সহ ২০০ টন‌  মালপত্র। তবে আচমকাই 260 ফুট নদীতে উল্টে যায় স্টিমারটি। যার কারণেই এমন ঘটনায় আহত হয়ে রক্তাক্ত হয়ে পড়েন বেশকিছু কর্মীরা। সেই রক্তের ঘ্রান পেয়ে সেখানে হানা দেয় পিরহানার দল। এরপরই আহত সকল নাবিকদের উপর হামলা চালালে কোন রকমে ৫২০ জন নাবিকদের মধ্যে প্রাণে বেঁচে ফিরতে পারে ১৮২ জন ব্যক্তি। কিন্তু হিংস্র মাছ গুলির আক্রমণের শিকার হয় ৩৮৪ জন।  সেই ঘটনার পর থেকেই প্রশাসনিক তরফে কড়াকড়ি করে দেওয়া হয় সমুদ্র তীরবর্তী অঞ্চল গুলিতে।  বর্তমানে দু-একটি এমন দুর্ঘটনার প্রায় শোনা যায়। তবে কেউ যদি দক্ষিণ আমেরিকা, উত্তর আমেরিকা আফ্রিকা ঘুরতে যান তাহলে হিংস্র মাছগুলি থেকে সর্তকতা অবলম্বন করা একান্তই প্রয়োজন। ‌

Leave a Reply

Your email address will not be published.