ভগবান শ্রীকৃষ্ণের এই অবতারের নাম কি? কি জানা নেই? না জানা থাকলে জেনে নিন শ্রীকৃষ্ণের এই অবতারের নাম সাথে কিছু অজানা তথ্য

নিউজ ডেস্ক: ভগবান শ্রীকৃষ্ণ যিনি এই গোটা বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের পালনকর্তা। তাকে বলা হয় যে যখনই এই ব্রহ্মাণ্ডে পাপে ভরে উঠে তখনই ভগবান শ্রীকৃষ্ণ স্বয়ং পাপের বিনাশ করতে আসেন। পাপের বিনাশ এবং ধর্ম স্থাপনের জন্য তিনি ইতিমধ্যে ৯ টি অবতার ধারন করে ফেলেছেন। আর পুরানে ভাগবান শ্রীকৃষ্ণের দশ অবতারের উল্লেখ্য আছে। আর এই দশ অবতারের মধ্যে বাকি আছে একটি অবতার।যেই অবতার এই কলিযুগের বিনাশ করে ধর্মযুগের সূচনা করবেন।এবার বলুন তো ভগবান শ্রীকৃষ্ণের এই অবতারের নাম কি? কি জানা নেই? না জানা থাকলে জেনে নিন শ্রীকৃষ্ণের এই অবতারের নাম সাথে কিছু অজানা তথ্য।

পুরান অনুযায়ী, সম্ভল নামক একটি গ্রামে বিষ্ণুযশ নামক এক শ্রেষ্ঠ ব্রাহ্মণের পুত্ররূপে ভগবান কল্কি জন্ম নেবে। যিনি দেবদত্ত নামক এক ঘোড়ায় চেপে হাতে তরবারি নিয়ে দুষ্টের দমন করে  কলিযুগের সমাপ্তি ঘটিয়ে সত্য যুগের সূচনা করবেন।

ভগবান বিষ্ণুর দশম অবতার কল্কি অবতারের আরেকটি নাম হল নিষ্কলঙ্ক অবতার। আর এই অবতারে তার মাতার নাম হবে সুমতি এবং তার তিনজন বড় ভাই থাকবে যাদের নাম হবে যথাক্রমে সুমন্ত প্রাজ্ঞ ও কবি। এবং পরশুরাম হবেন তাদের গুরু।

ভগবান  কল্কির দুই স্ত্রী থাকবেন। একজন লক্ষ্মীর রূপ পদ্মা ও অন্যজন বৈষ্ণবী শক্তি রূপা রমা। কল্কির চার ছেলে হবে। এঁদের নাম হবে জয়, বিজয়, মেঘওয়াল ও বালাহক।

পুরাণ অনুসারে, কলিযুগের অন্তিমে ভগবান কল্কি অবতার ধারণ করবেন এবং কলিযুগের সমস্ত অধর্মের বিনাশ করে পুনরায় ধর্মের সূচনা করবেন। তবে বর্তমানে কলিযুগের কিছু সময়ই পার হয়েছে এই জন্য এই কল্কি অবতারের আগমন এখনো অনেক দেরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.