পাকিস্তানের এই রাষ্ট্রদূত সরকারের নাকের ডগা দিয়ে আস্তে একটা দূতাবাস ভবন বিক্রি করে দিয়েছেন

নিউজ ডেস্ক  – নিয়মানুসারে সরকারের অধীনস্থ কোন জমি কিংবা প্রপার্টি সরকারের অনুমতি ছাড়া বিক্রি করা যায় না। কিন্তু পাকিস্তানের এই রাষ্ট্রদূত সরকারের নাকের ডগা দিয়ে আস্তে একটা দূতাবাস ভবন বিক্রি করে দিয়েছেন। সেই ব্যক্তি হলেন পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা সৈয়দ মুস্তাফা আনোয়ার।  

পাকিস্তানি গণমাধ্যমে জানা গিয়েছে ইন্দোনেশিয়ায় ২০০১/২০০২ সালে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে মেজর জেনারেল সৈয়দ মুস্তাফা মনোয়ার জাকার্তায় পাক দূতাবাস ভবনটি বিক্রি করে দেন! যেটি ছিল সম্পূর্ণ আইন নিষিদ্ধ।  এছাড়াও সরকারি অনুমতি ছাড়া এই ভবন বিক্রি করে দেওয়ায় দেশের ক্ষতি হয়েছে প্রায় ১৩ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার।  তবে শুধুমাত্র আইন নিষিদ্ধ হবে ভবন বিক্রি করা নয় এছাড়া একাধিক বহু বেআইনি কার্যকলাপ করে গেছেন তিনি।

পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় নজরদারি প্রতিষ্ঠানে অর্থাৎ ন্যাশনাল একাউন্টিবিলিটি ব্যুরোর রাওয়ালপিন্ডি শাখা  সৈয়দ মুস্তাফা আনোয়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।  রীতিমতো বিক্রির প্রক্রিয়া শুরু করার পর আনোয়ার রাষ্ট্রীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে খবর দেয়। এছাড়াও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পরোয়া না করেই সংবাদমাধ্যমে দূতাবাসে বিক্রির বিজ্ঞাপন দেয় অভিযুক্ত সৈয়দ মোস্তফা আনোয়ার।  কিন্তু ন্যাশনাল ব্যুরোর  তরফ থেকে  অভিযোগ দায়ের করলেও দীর্ঘদিন ব্যতীত হওয়ার পর কোনরকম সদুত্তর না পাওয়ায় এনএবিকে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয় পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের। যথারীতি কোর্টের তরফ থেকে জানানো হয়েছে দীর্ঘ সময় চলে যাওয়ার পরেও কোনরকম প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.