বিয়ের নিয়ম অনুসারে সেই গোষ্ঠীর মহিলাদের সঙ্গে অন্য পুরুষরা যখন খুশি তখন শারীরিক সঙ্গমে লিপ্ত হতে পারেন। কোন দেশে জানেন?

নিউজ ডেস্ক – এখনো পর্যন্ত গোটা বিশ্বে বিবাহ জিনিসটিকে পবিত্র বলেই মনে করা হয়। কিন্তু নানা দেশের নানা নিয়ম অনুসারে এমন একটি গোষ্ঠী রয়েছে যেখানে অন্যের বউ নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করার কিংবা বিয়ে করার অনুমতি থাকে। এমন অদ্ভুত প্রজাতির নিয়ম-নীতি দেখা যায় পশ্চিম আফ্রিকার নিগার দেশের ওডাবে জন জাতির মধ্যে। কেউ বাধা দেয় না এমন  অদ্ভুত খেলায়। 

বিস্তারিত ভাবে বলতে গেলে ওডাবে  জনজাতির মধ্যে কিছু মৌলিক সাংস্কৃতিক রয়েছে যার কারণে সেই প্রজাতির পুরুষরা মনে করেন তারা পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর ব্যক্তি। যার কারণে প্রতিনিয়ত নিজের রূপচর্চার জন্য সর্বদাই একটি আয়না রাখেন। কিন্তু কোন পুরুষ সবচেয়ে বেশি সুন্দর তা ঠিক করেন সেই সম্প্রদায়ের তিনজন সুন্দরী মহিলা। এরপর এই সৌন্দর্য তা বিচার করার পর আসে বিয়ের অনুষ্ঠানে।  

বিয়ের নিয়ম অনুসারে সেই গোষ্ঠীর মহিলাদের সঙ্গে পুরুষরা যখন খুশি তখন শারীরিক সঙ্গমে লিপ্ত হতে পারেন।  এরপরই আসে একটি গেরওল নামের অনুষ্ঠান।  সেখানে পুরুষরা তাদের সেরা পোশাকটি পড়ে  নিজেদের রাজকুমারের মতো তৈরি করেন। এর কারণ হচ্ছে একমাত্র অন্যের স্ত্রীকে প্রভাবিত করা। এরপরই দু’পক্ষের সম্মতি থাকলে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারেনি। এ ক্ষেত্রে দেখা গেছে অধিকাংশে তার আগের স্বামীর অনুমতি থাকে। তবে যে সকল বিবাহিত পুরুষ তাদের স্ত্রীদের অনুমতি দেন না কিন্তু যদি স্ত্রীদের মত থাকি ক্ষেত্রে প্রথম স্বামীর আদেশ অমান্য করে অন্য পুরুষের সঙ্গে দ্বিতীয় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারে। যদিও এই প্রথার বয়স খুবই। কিন্তু বর্তমানে এই অদ্ভুত খেলা বন্ধ করার জন্য আওয়াজ উঠিয়েছে সেই সম্প্রদায়ের বাসিন্দারা। পাশাপাশি নিজেদের স্ত্রীদের এই খেলায় অংশগ্রহণ করতেও বাধা দিচ্ছেন কিছু স্বামী। যতই হোক নিজের স্ত্রীকে পর পুরুষের হাতে তুলে দেওয়া কোন স্বামীর কাছে সহজ ব্যাপার নয়। সুতরাং সেই ক্ষেত্রে এই কড়াকড়ি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.