কোন দেশের সকল মানুষ অন্ধ?

নিউজ ডেস্ক –  বিভিন্ন রকম আদিবাসীদের গ্রামের  দর্শন পাওয়া যায় পৃথিবীতে। তবে বর্তমানে এমন একটি গ্রামের খোঁজ পাওয়া গেল যেখানে মানুষ থেকে শুরু করে সকল প্রাণীরা অন্ধ। এমন এক অদ্ভুত  গ্রামটি রয়েছে মধ্য আমেরিকার মেক্সিকোতে টিলটেপেক অঞ্চলে। 

দেখা গিয়েছে এই গ্রামের সিংহভাগ মানুষ তথা পোষ্যরাও অন্ধ। কিন্তু এরা যে জন্মগত অন্ধ সেটি নয়। কার্যত এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে আসার পর রীতিমতো চিন্তিত হয়ে পড়েছে সেখানকার প্রশাসন ও বিজ্ঞানীরা। এরপরই কারণ খুঁজতে মরিয়া হয়ে ওঠে বিজ্ঞানী দল। 

পরবর্তীতে নানান জিনিস বিচার-বিশ্লেষণ করে তাদের হাতে ধরা পরে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। বৈজ্ঞানিকদের মতানুসারে টেলটেপেকে জাপোটেক সম্প্রদায়ের আদিবাসী গোষ্ঠীদের বসবাস। তবে সেখানকার বাসিন্দাদের অন্ধত্বের কারণে পেছনে মনে করেন  গ্রামে লাবজুয়েলা নামের একটি গাছ রয়েছে। মূলত সেই অভিশপ্ত গাছের কারণেই গ্রামবাসীরা আস্তে আস্তে অন্ধে পরিণত হচ্ছে। যদিও এই মত ধারণাটি  সম্পূর্ণ গ্রামবাসীদের। কার্যত গ্রামবাসীদের অনুসন্ধানের ভিত্তিতে বিভিন্ন পরীক্ষা করে গাছের সঙ্গে অন্ধ হওয়ার কোনো সম্পর্ক খুঁজে পাননি বিশেষজ্ঞরা। 

পরবর্তীতে তারা নিজেরাই খোঁজ করে জানতে পারেন কোন জঙ্গলে আবৃত গ্রামটিতে ‘ব্ল্যাক ফ্লাই’ নামের  এক ধরনের বিষাক্ত মাছি রয়েছে। আর এই মাছির পরিবেশের বিষক্রিয়া ছড়ানোর মাধ্যমে গোটা গ্রামবাসীদের অন্ধত্ব গ্রাস করছে। কার্যত সরকারের ঘরে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য পৌঁছানোর পর গ্রামটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে গ্রামবাসীদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সেখানকার প্রশাসন। কিন্তু অবাক কাণ্ড ঘটে গ্রামবাসীদের ক্ষেত্রে। হাজার কষ্ট হলেও, সকলকে অন্ধত্ব গ্ৰাস করলেও মায়াপরে  যাওয়া এই গ্রামটি পরিত্যাগ করতে রাজি নয় কোন গ্রামবাসী। ‌ যার কারণে সরকারি ঘোষণাকে একপ্রকার নাকচ করে দিয়েই অন্ধত্বকে হাসিমুখে বরণ করে  গ্রামে বসবাস করছে গ্রামবাসীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.