পোড়া দাগ তুলতে হলে বেকিং সোডার সঙ্গে খুব অল্প জল মিশিয়ে পাত্রের গায়ে মাখিয়ে রেখে দিন বেশ কয়েক ঘণ্টা।এরপর ধুয়ে নিলে দাগ উঠে যাবে

নিউজ ডেস্কঃ রান্না ঘরে বেশ কিছু জিনিস আছে যা দিয়ে রান্না ঘরের জিনিসই ঠিক রাখা যায়। কিন্তু অনেকে না জানার কারনে সেই সুবিধা নিতে পারেন না।

বাটা মশলার পরিমান যদি বেশি হয়ে যায়, তাহলে তার সঙ্গে অল্প নুন মিশিয়ে ফ্রিজে রাখলে ভালো থাকবে অনেকদিন।

মশলা রাখার তাকে ছোট কাপড়ের পুঁটলিতে কয়াল জিরে আর শুকনো লঙ্কা বেঁধে রেখে দিলে সহজে আরশোলা হবে না।

বাসনপত্রে যদি মাছের গন্ধ হয়ে যায়, তাহলে কয়েক ফোঁটা ভিনিগার ছিটিয়ে ধুয়ে নিলেই আর গন্ধ থাকবে না।

পোড়া দাগ তুলতে হলে বেকিং সোডার সঙ্গে খুব অল্প জল মিশিয়ে পাত্রের গায়ে মাখিয়ে রেখে দিন বেশ কয়েক ঘণ্টা।এরপর ধুয়ে নিলে দাগ উঠে যাবে।

রান্না ঘরের নালি যদি তেল কালি দিয়ে বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে ১ কাপ নুন আর ১ কাপ বেকিং সোডা নালিতে ঢেলে এক কেটলি গরম জল ঢালুন।

ফ্রিজে একটা পাতিলেবু টুকরো টুকরো করে কেটে রেখেদিন।ভেতরের যাবতীয় গন্ধ লেবু শুষে নেবে।ফ্রিজ থাকবে পরিষ্কার।

রুপোর বাসনের আলমারিতে এক টুকরো কর্পূর রেখে দিলে রুপোর উজ্জ্বল্য ও পালিশের কোনোরকম নস্ট বা বিকৃতি হয় না।

জলে কিছু পরিমান কেরোসিন তেল মিশিয়ে যদি ঘর মোছা যায়, তাহলে পিঁপড়ে ও মশার উপদ্রব কম হয় এবং মেঝে মসৃণ থাকে।

শরীরে কোনো জায়গায় আচিল হলে দুঃখের কোনো কারন নেই।লরি-বিশাখার পাতা নুন দিয়ে ঘষে আঁচিলের লাগালে তা নষ্ট হয়ে যায়।

বোলতা বা বিছে কামড়ালে যদি সেই ক্ষতস্থানের ওপর পেঁয়াজের রস লাগানো যায়, তাহলে জ্বালা কমে যাবে। যদি কখনও মাথার সামনের চুল উঠে টাকের সৃষ্টি হয়, তাহলে কিছু কেশুত পাতার রসের সঙ্গে সমপরিমাণ নারকেল তেল মিশিয়ে মাখলে টাকে চুল গজায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.