দিলিপ কুমার থেকে শুরু করে ধরমেন্দ্র। যে  দম্পতিদের মধ্যে রয়েছে  বিরাট বয়সের ব্যবধান

বিবাহের ক্ষেত্রে বয়স কোনো বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না ।  যখন দুজন মানুষের মধ্যে ভালোবাসা থাকে , তখন কেউ বয়সের কথা চিন্তা করে না।  ইউএসএর প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প থেকে বলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা দিলীপ কুমার  অনেকেই বিশ্বের কাছে তার প্রমাণও বটে ।  তারা প্রত্যেকেই  বিবাহিত এবং তাদের সঙ্গীর সঙ্গে বয়সের ফারাক রয়েছে অনেকটা কিন্তু তবুও তারা  পরিপূর্ণ সংসার জীবনযাপন করছেন। বর্তমানে সেলিব্রিটি থেকে সাধারণ মানুষ যখন বিয়ে ভাঙতে ব্যস্ত ঠিক তখনই    তারা একে অপরকে নিয়ে খুশি হতে ব্যস্ত।

এখানে কিছু বিখ্যাত দম্পতির একটি তালিকা রয়েছে যাদের বয়সের পার্থক্য আছে কিন্তু তাদের মধ্যে প্রেমের অভাব নেই ।  ভালোবাসার ভাষায় বয়স একটা সংখ্যা ছাড়া আর কিছুই নয় তার প্রমাণ করে দিয়েছেন তারা। 

ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং মেলানিয়া ট্রাম্প: 

এই দুইজন বিখ্যাত দম্পতির মধ্যে বয়সের ব্যবধান ২৪ বছরের।  ১৯৯৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে একটি ফ্যাশন উইক ইভেন্টের সময় নিউইয়র্ক টাইমস স্কয়ার নাইটক্লাবে একটি পার্টিতে তাদের প্রথম দেখা হয়েছিল। প্রায় এক বছর পরে তারা তাদের সম্পর্ক নিয়ে প্রকাশ্যে আসে। ২০০৫  সালে বিরাট বড় অনুষ্ঠান করে এক ঝাঁক তারকার উপস্থিতিতে বিয়ে করেন তারা । তখন থেকেই তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব হিসেবে রয়েগেছেন।  ২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্প রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তাদের জনপ্রিয়তা আরও বৃদ্ধি পায়। ২০২০  সালে জো বাইডেন রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব নেওয়ার আগে পর্যন্ত তিনি রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেছেন । যদিও তাদের দুজনেরই এটা তৃতীয় বিবাহ তবুও  তারা গোটা বিশ্বের কাছে আদর্শ দম্পতির দৃষ্টান্ত । 

বিয়ন্সে এবং জে- জেড : 

এই যুগল  প্রাথমিকভাবে ২০০১ সাল থেকে  ডেটিং শুরু করেন। তারা ৪ এপ্রিল,২০০৮ -এ বিয়ে করেন। এদের দুজনের মধ্যে বয়সের পার্থক্য  প্রায় ১২  বছরের । ২০১২ সালে, তাদের প্রথম কন্যা সন্তান ব্লু আইভি কার্টারের জন্ম হয়।  তারপর ২০১৭ সালের জুন মাসে, তাদের  যমজ সন্তান রুমি এবং স্যার জন্মায়। এই দুই দম্পতি তাদের সম্পর্কের ২০ বছর পূর্ণ করেছেন এবং এখনও  যেনো তারা নতুন প্রেমিক প্রেমিকা । তাদের একটি বিশাল ফ্যান ফলোয়িং আছে এবং তারা বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী ব্যক্তিত্ব।

তেমের ও মার্সেলা: মিশেল মিগুয়েল ইলিয়াস তেমের লুলিয়া ব্রাজিলের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি  ।  তিনি ২০১৬ থেকে ২০১৯  পর্যন্ত এই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছিলেন ।   প্রথম স্ত্রী মারিয়া সেলিয়া টলেডোর সঙ্গে তেমেরের তিনটি কন্যা রয়েছে।  তেমেরের মার্সেলার সাথে প্রথম ২০০২ সালে দেখা হয়  যখন উভয়েই ব্রাজিলিয়ান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট পার্টির বার্ষিক রাজনৈতিক শীর্ষ সম্মেলনে যোগদান করছিলেন। তেমের তার স্ত্রীয়ের চেয়ে ৪২ বছরের বড় । ২০০৩  সালের ২৬ শে জুলাই তারা ছোট একটি ব্যক্তিগত অনুষ্ঠান করে  বিয়ে করেন।  তাদের একটি ছেলেও রয়েছে যার নাম মিশেল।

জো বাইডেন এবং জিল বাইডেন: 

জো বাইডেন প্রথম জিল বাইডেনের সাথে ১৯৭৫ সালে দেখা করেছিলেন । সেটি ছিল তাদের একটি ব্লাইন্ড ডেট । তিনি সেই সময় ৩৩  বছর বয়সী একজন মার্কিন সিনেটর ছিলেন এবং তার স্ত্রী  তখন ২৪ বছর বয়সী কলেজের সিনিয়র ছিলেন।  দুজনেরই আগে বিয়ে হয়েছিল। বাইডেনের প্রথম স্ত্রী এবং কন্যা নাওমি ( তার বয়স তখন মাত্র ১ বছর ছিল) ১৯৭২ সালে একটি অটোমোবাইল দুর্ঘটনায় মারা যান এবং তিনি দুজন আহত ছেলেসহ একা  হয়ে পড়েন ।  জিল যখন জুনিয়র ইয়ারে ছিল তখন তার প্রথম স্বামী ডিভোর্স দায়ের করেছিলেন। জিল হ্যাঁ বলার আগে বাইডেন পাঁচবার বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন এবং তারা অবশেষে তারা ১৯৭৭  সালে বিয়ে করেছিলেন। এই দুঃখজনক ঘটনার পর জিলই রাজনীতিতে তার আগ্রহ ফিরিয়ে এনেছিল।  বিবাহের ৪৫ বছর পরেও, তারা একে অপরকে ছোট ছোট উপায়ে চমক দিতে ভোলেন না । 

এলেন ডিজেনারেস এবং পোর্টিয়া ডি রসি: 

এলেনের বয়স ৬৪ বছর এবং ডি রসির বয়স ৪৮  এবং তারা ১৪ বছর ধরে বিবাহিত।  ডিজেনারেস ১৯৯৭  সালে  নিজেকে লেসবিয়ান হিসাবে উল্লেখ করেন । ডিজেনারেস এবং ডি রসি ২০০৪  সাল থেকে একসাথে ছিলেন। ক্যালিফোর্নিয়ায় সমকামী বিয়ে বৈধ হওয়ার পর, তারা আগস্ট ২০০৮-এ বিয়ে করেন। তারা তাদের চারটি কুকুর এবং তিনটি বিড়াল নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়ার বেভারলি হিলসে থাকে। ১৬  বছর বয়সের পার্থক্যের সত্বেও তারা খুব সুখী জীবনযাপন করছেন।

জর্জ ক্লুনি এবং আমাল আলামুদ্দিন: 

২০১৪ সালে ক্লুনি এবং আলামুদ্দিন বিয়ে করেছিলেন ।  ২০১৩ সালে  এক মিউচুয়াল ফ্রেন্ডের  আয়োজিত একটি ডিনার পার্টিতে তাদের  প্রথম দেখা হয়েছিল। ক্লুনির বয়স ৬১ বছর এবং আলামুদ্দিনের বয়স বর্তমানে ৪৪ বছর।  তাদের মধ্যে বয়সের ব্যবধান ১৭  বছরের । ২০১৭  সালের জুনে, তারা যমজ সন্তান এলা এবং আলেকজান্ডারের জন্ম দেয় ।  ক্লুনি  তার আগেও বহু লোকের সাথে ডেটিং করেছেন এবং  আলামুদ্দিনকে বিয়ে করার আগে মাত্র ৪  বছরের জন্য তালিয়া বালসামের সাথে বিয়ের সম্পর্কে ছিলেন । 

জেফরি গোল্ডব্লাম এবং এমিলি লিভিংস্টন: জেফরি লিন গোল্ডব্লাম ২০১৪ সালে একজন কানাডিয়ান অলিম্পিক জিমন্যাস্ট এমিলি লিভিংস্টনের সাথে বাগদান করেছিলেন। লিভিংস্টন তার থেকে ৩০ বছরের জুনিয়র।  এই দম্পতি ২০১৫  সালে তাদের প্রথম ছেলে এবং ২০১৭ সালে তাদের দ্বিতীয় ছেলের জন্ম দেয় । এটি গোল্ডব্লামের তৃতীয় বিয়ে এবং  তারা আদর্শ দম্পতির হিসেবেই পরিচিত ।  বয়সের বিশাল ব্যবধান আসলে কোনো সমস্যা নয় তাদের দেখে এটারই প্রমাণ পাওয়া যায় ।

রায়ান রেনল্ডস এবং ব্লেক লাইভলি:

রেনল্ডস ২০১০ সালে গ্রীন ল্যান্টার্নের চিত্রগ্রহণের সময় লাইভলির সাথে প্রথম দেখা করেন।  সেই সিনেমায় তারা একসঙ্গে অভিনয় করেছেন।  তারা ২০১১ সালের অক্টোবরে ডেটিং শুরু করে এবং ৯ই সেপ্টেম্বর, ২০১২ -এ বিয়ে করেন। ১১ বছর বয়সের ব্যবধান সত্বেও তারা  সুখে শান্তিতে জীবনযাপন করছেন।  এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে যেখানে তারা একে অপরের প্রতি তাদের ভালবাসা প্রকাশ্যে প্রকাশ করেছেন।  তারা একটি সুন্দর বন্ধন ভাগ করে নেয় এবং তাদের ইনস্টাগ্রাম পোস্টগুলি দেখলেই তা বোঝা যায় ।  তাদের তিনটি কন্যা রয়েছে এবং ৯ বছর ধরে তারা বিবাহিত । 

 নিক জোনাস এবং প্রিয়াঙ্কা চোপড়া: 

এই দুই বিখ্যাত  সেলিব্রিটি যুগল ২০১৮ সালে ডেটিং শুরু করেন এবং একই বছরের ডিসেম্বরে বিয়ে করেন। তাদের  প্রথম দেখা হয়েছিল ২০১৭  সালে মেট গালায়।  তিনি একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন যে তিনি এবং জোনাস উভয়েই মেট গালায় রাল্ফ লরেন পরতে চলেছেন, তাই তারা হঠাৎ ইভেন্টে একসাথে উপস্থিত হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেছিলেন। জোনাসের সবসময়ই বয়স্ক মহিলাদের প্রতি আগ্রহ ছিল।  তাই দেশি গার্লের প্রতি তার আগ্রহ বেড়ে যায়।  তারা প্রমাণ করেছে যে প্রেম, স্নেহ এবং ভাল বন্ধন থাকলে ১০ বছরের বয়সের ব্যবধান কোনও ব্যাপার  নয়।  তারা সম্প্রতি তাদের মেয়ে মালতি মারি চোপড়া জোনাসকে সারোগেসির মাধ্যমে তাদের জীবনে স্বাগত জানিয়েছেন।

 ধর্মেন্দ্র এবং হেমা মালিনী:

ভারতের এই বিখ্যাত, সেলিব্রেটি দম্পতির মধ্যে বয়সের ব্যবধান ১৩ বছর।  তাদের দুটি মেয়ে রয়েছে এবং চার দশক ধরে তারা বিবাহিত। যদিও এটি  ধর্মেন্দ্রর দ্বিতীয় বিয়ে এবং তার প্রথম বিয়ে থেকে দুজন ছেলে এবং দুজন মেয়ে রয়েছে।

দিলীপ কুমার এবং সায়রা বানু:

এই দুই বিখ্যাত যুগল  ৫৪ বছর ধরে বিবাহিত ছিলেন । সায়রা বানু প্রয়াত কিংবদন্তি শিল্পী দিলীপ কুমারের থেকে ২৩ বছরের ছোট ছিলেন।  দিলীপ কুমারের শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত তারা একসঙ্গে কঠিন সময় পার করেছেন । দিলীপ কুমার ২০২১ সালে মারা যান।

রাজেশ খান্না এবং ডিম্পল কাপাডিয়া:  রাজেশ খান্না  ১৯৭৩ সালে  ডিম্পল কাপাডিয়াকে বিয়ে করেছিলেন যখন তার বয়স ছিল ৩১ বছর এবং ডিম্পলের  বয়স তখন  ছিল মাত্র ১৬ বছর !  তাদের এই সম্পর্কে হতবাক হয়েছিলেন অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। যদিও তাদের বিয়ে কাজ করেনি এবং ১৯৮২  সালে তারা আলাদা হয়ে যায় ।কিন্তু তাদের বিবাহবিচ্ছেদ কখনই সম্পূর্ণ হয়নি। স্ত্রী   অভিনয় করতে পারবে না এই রক্ষণশীল বিশ্বাসের কারণে তারা আলাদা হয়ে যায় ।   তিনি ২০১২  সালে কাপাডিয়া, তার কন্যা, জামাই এবং নাতি-নাতনিদের উপস্থিতিতেই মারা যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.