কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রন করে। গ্রিন টির অসাধারন ৮ টি কাজ জেনে রাখুন

নিউজ ডেস্কঃ চা খায়না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া বেশ মুশকিল। কারন শরীর গরম করার পাশাপাশি কাজে মন বসাতে অনেকেই চা খেয়ে থাকেন। চায়ের অনেক প্রকারভেদ থাকলেও গ্রিন টি পছন্দ করেন এমন মানুষ প্রচুর রয়েছে। তবে জানেন কি গ্রিন টি খেলে একাধিক রোগ উপশম হতে পারে।

ওজন নিয়ন্ত্রনঃ গ্রিন টি হজম ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।এর পলিফেলন শরীরের ফ্যাট অক্সিডেশন প্রক্রিয়াকে আরও কার্যকর করে খাবার থেকে ক্যালোরি তৈরি প্রক্রিয়ায় সহায়তা করে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনঃ খাবার পরে রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ে যা প্রত্যক্ষভাবে নিয়ন্ত্রন করে গ্রিন টি।ফলে দেহে অতিরিক্ত চর্বি জমতে পারে না।

হৃদরোগঃ বিজ্ঞানীদের মতে গ্রিন টি শরীরের প্রতিটি শিরায় কাজ করে।ফলে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে।তাই কোন কারনে রক্তচাপের পরিবর্তন হলে কোন ধরণের ক্ষতি করে না।তাছাড়া এই চা রক্ত জমাত বাধতে দেয় না।ফলে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার সম্ভবনা অনেক কমে যায়।

খাদ্যনালীর ক্যান্সারঃ গ্রিন টি খাদ্যনালীর ক্যান্সারের ঝুকি কমায়।এছাড়াও ভালো কোষগুলোর কোন ক্ষতি  না করে সার্বিকভাবে ক্যান্সারের কোষ নির্মূল করে।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রন করেঃ গ্রিন টি শরীরে ক্ষতিকার কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি প্রয়োজনীয় কোলেস্টেরল অর্থাৎ ভালো কোলেস্টেরলের পরিমাণও বাড়ায়। যা হার্টের জন্য বেশ কার্যকারী।

দাঁতের সুস্থতাঃ গ্রিন টির ক্যাটকাইন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মুখের ভিতরে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস ধ্বংস করে।যা গলার ইনফেকশানসহ দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা কমিয়ে আনে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রন করেঃ নিয়মিত গ্রি টি পান করলে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমে যায়।

ত্বকের যত্নেঃ মুখে বয়সের ছাপ ও বলিরেখা দূর করতে গ্রিন টির জুড়ি নেই।এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামাটরি উপাদান ত্বকে বলি রেখা পড়তে দেয় না।তাছাড়া এটি ত্বকের রোদে পোড়াভাব কমাতে ও ব্ল্যাক হেডস দূর করতে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.