আজও পাকিস্তানে রয়েছে যে হিন্দু মন্দির

নিউজ ডেস্ক – পাকিস্তানের যে সকল হিন্দু স্থান রয়েছে সেখানে বহুবার হামলা করেছেন পাকিস্তানিরা। এই দৃশ্য জনসম্মুখে এসেছে বহুবার ।  কিন্তু বর্তমানে  একটি বিরল ঘটনা দেখা দিয়েছে। যদিও সেই ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের করাচিতে সোলজার বাজারে অবস্থিত ১৫০০ বছরের পুরনো পঞ্চমুখী হনুমান মন্দিরে।

লোকভাষ্য মতে  ১৫০০ বছরের পুরনো পঞ্চমুখী হনুমান বিগ্রহটি কোন মনুষ্যসৃষ্ট নয়। এখানে যে মূর্তিটি রয়েছে সেটি  প্রাকৃতিক মূর্তি। এই মূর্তিটির ৫ অবতার নরসিংহ, আদিবরাহ, হায়াগ্রীবা, হনুমান এবং গরুড় রয়েছে। নীল ও সাদা রংয়ের এই মূর্তিটির উচ্চতা প্রায় ৮ ফুট।  পাশাপাশি যথেষ্ট জাগ্রত এই হনুমান মূর্তি।  

মন্দিরে প্রবেশের পরে, মন্দির চত্বরের মাঝখানে একটি খোদাই করা হলুদ পাথর কাঠামো লক্ষ্য করা যায়। কাঠামোটি সুপ্রাচীন হওয়ায় অনেকাংশই ভগ্নপ্রায়। এই মন্দিরটির সংস্কারের কাজটি ২০১২ সালে শুরু হয়েছিল এবং মন্দিরটির আদি কাঠামো সংরক্ষণের জন্য, খিলান দেয়ালগুলি পুনর্নির্মাণের জন্য হলুদ পাথর ব্যবহার করা হচ্ছে। পাশাপাশি মন্দিরের সামনের ছোট বারান্দার দু’পাশে খোদাই করা হলুদ পাথরের স্তম্ভ রয়েছে যার চারপাশে কালো এবং সাদা মার্বেল মেঝে রয়েছে, এর চারদিকে ঘড়ির কাঁটা প্রদক্ষিণের জন্য একটি প্রশস্ত পথ রয়েছে। তবে আর পাঁচটি হিন্দু মন্দিরের মতো হনুমান মন্দিরেও আঘাত করে পাকিস্তানিরা।  কিন্তু বহু আঘাত আক্রমণ করার পরেও শিরদাঁড়া সোজা করে ও মাথা উঁচু করে অক্ষত রয়েছে হনুমান বিগ্রহটি।  কিন্তু দীর্ঘদিন সংস্করণের  অভাবে কিছুটা  ভগ্নপ্রায় হয়ে রয়েছে মন্দিরটি।  দীর্ঘ কয়েক যুগ আগে মন্দিরটি তৈরি হলেও আজও  জাগ্রত। মূলত সকল সম্প্রদায় যেমন শিখ, জৈন, বৌদ্ধ,  হিন্দু কিংবা মুসলিম  সকলের জন্য দ্বার খোলা রয়েছে হনুমান মন্দিরের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.