পাকা পেঁপে ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে বিশেষভাবে সাহায্য করে

নিউজ ডেস্কঃ আমরা নিজেদেরকে ত্বকে সুন্দর রাখার জন্য বিভিন্ন ধরনের জিনিস করি যেমন বিভিন্ন ধরনের কসমেটিক,পার্লারে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের ফেসিয়াল।যা আমাদের অর্থের অপচয়ের সাথে সাথে আমাদের ত্বকেরও ক্ষতি।তাই ত্বককে যদি সুন্দর করতে চান তাহলে এর বাইরে যাওয়ার কোন দরকার এই এটি ঘরে বসেই আপনারা করতে পারবে।আর তার সাথে এইগুলি খুবই উপকারি আমাদের ত্বকের পক্ষে।তাহলে জেনে নিন কিছু ঘরোয়া উপকরন।যা ত্বকের সুরক্ষার সাথে সাথে সুন্দর করতেও সাহায্য করবে। 

পাকা কলা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী৷ একটি পাকা কলার পেস্ট করে সারা মুখে আর গলায় লাগান। চাইলে এতে একটু মধু মেশাতে পারেন।এই মিশ্রণটি ১৫ থেকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন তারপর এটি জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।এই প্যাকটি যাদের শুষ্ক ত্বক তাদের পক্ষে খুবই ভাল কাজ দেয় এছাড়াও এটি ত্বককে নরম ও মোলায়েম করতে সাহায্য করে।

পাকা টমেটোর পেস্ট করে মুখে লাগান।এই মিশ্রণটি ১৫ মিনিট রেখে দিন লাগিয়ে রেখে দিন।তারপর শুকিয়ে গেলে ঘষে ঘষে তুলে ফেলুন। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে নিন।এই প্যাকটি তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে ভাল স্ক্রাবার হিসাবে কাজ করে।এছাড়াও এটি রোদের পোড়া ভাবও কমাতে সাহায্য করবে।

পাকা পেঁপে ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে বিশেষভাবে সাহায্য করে।প্রথমে পাকা পেঁপে একটি পেস্ট করে নিন। তারসঙ্গে  মধু ও সামান্য ময়দা দিন।তারপর ওই মিশ্রণটিকে মুখে লাগিয়ে আধা ঘণ্টা রেখে দেওয়ার পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।এতে দেখবেন ত্বক কতটা উজ্জ্বল লাগছে।

শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে শশার রস খুবই উপকারি।এটি  ত্বককে ঠাণ্ডা রাখে।তাই শশার রসে তুলো ভিজিয়ে দুই চোখের উপর দিয়ে রাখুন তারপর  তুলো শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলুন।এতে চোখের চারদিকের কালো ভাব দূর হয়ে যাবে।আর যদি আপনারা রস করতে না চান তাহলে শসাকে মিহি ঝুরি করে চটকে নিন। তারপর মুখে বা চোখের উপর দিয়ে রাখুন। শসার রস হল একটি প্রাকৃতিক টোনার।

কমলার লেবুর খোসা রোদে শুকিয়ে রাখুন।তারপর এই খোসা মুসুরির ডালের সঙ্গে মিশিয়ে বেটে নিন।আর এটিকে একটি স্ক্রাবার হিসাবে ব্যবহার করুন।

এছাড়াও বেশ কয়েক রকমের আঙ্গুরকে চটকে রস করে নিন। এক সঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন।এটি তৈলাক্ত ত্বকের পক্ষে খুবই উপকারি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.