জার্মানকে দুভাগে ভাগ করে দেওয়ার পেছনে কোন কোন দেশ ছিল জানেন?

নিউজ ডেস্ক – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নিয়েছিল একাধিক ঘর। ভাগ হয়েছিল দেশ। তবে সরকারি নির্দেশিকা অনুযায়ী একটি দেশকে কখনো ভাবেননি সাধারণ মানুষ। সেই দেশের সরকারই শাসনাধীন কত ভোটে জয়লাভ করেছিল দেশবাসীর মতামত। এমনই এক দেশ হলো জার্মান। ‌সাল ১৯৬১, জার্মান গণপ্রজাতান্ত্রিক-এ কমিউনিস্ট সরকার পূর্ব ও পশ্চিম বার্লিনের মধ্যে কাঁটাতার ও কংক্রিটের মিশেলে তৈরি করা হয় প্রাচীর, যা ইতিহাসের পাতায় বার্লিনের প্রাচীর নামে খ্যাত।

সালটা ছিল  ১৯৬১। জার্মান গণপ্রজাতান্ত্রিক-এ কমিউনিস্ট সরকার পূর্ব ও পশ্চিম বার্লিনের মধ্যে কাঁটাতার ও কংক্রিটের মিশেলে তৈরি করা হয় প্রাচীর, যা ইতিহাসের পাতায় বার্লিনের প্রাচীর নামে খ্যাত।১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে জার্মানি হেরে গেল তা চার ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়ে ব্রিটেন, যুক্ররাষ্ট্র, সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং ফ্রান্সের দখলে চলে যায়। যার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের অংশ মিলিয়ে গঠিত হয় পশ্চিম জার্মানি এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ নিয়ে গঠিত হয় পূর্ব জার্মানি। প্রসঙ্গত ইয়ল্টা এবং পটসডমে অনুষ্ঠিত তিনটি সম্মেলনে স্থির করা হয় জার্মানি কটি ভাগে বিভক্ত হবে এবং কোন অংশ কার দখলে থাকবে। সেই সম্মেলনে অংশ নিয়েছিলেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট হ্যারি ট্রুম্যান, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিল এবং প্রাক্তন সোভিয়েত ইউনিয়ন নেতা জোসেফ স্ট্যালিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.