কোন ধরনের চিনি শরীরের পক্ষে বেশী উপকারি!

নিজস্ব সংবাদদাতা: অনেকেরই ধারণা সাদা অপেক্ষা বাদামি চিনি বেশি উপকারী। তাই অনেকেই বাদামি রঙের চিনি কেই খাদ্য তালিকায় প্রাধান্য দিচ্ছেন।সাদা পাউরুটির জায়গায় ব্রাউন পাউরুটি কিংবা সাদা ভাতের চেয়ে ব্রাউন ভাত বেশি পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ বলে অনেকে মনে করেন।এই নিয়ে চলছে বিতর্কও।

গবেষণা বলছে, তুলনামূলকভাবে কম শোধন এর কারণে হয় বলে সাদা চিনি এবং বাদামি চিনি দেখতে আলাদা।কিন্তু এর পুষ্টিগুণ ও কি আলাদা?চলুন জেনে নেওয়া যাক:

ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচারের এক রিপোর্ট বলছে, এক টেবিল চামচ বাদামি চিনিতে ১৭ কিলো ক্যালরি থাকে এবং আর একই পরিমাণ সাদা চিনিতে ক্যালরি থাকে ১৬ কিলো।পুষ্টিবিদরা বলছেন, দুই ধরনের চিনির মধ্যে পার্থক্য শুধু রঙ ও স্বাদেই।অনেকেরই ধারণা বাদামি চিনিতে ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, আয়রন ও ম্যাগনেশিয়াম বেশি মাত্রায় থাকে।কিন্তু পরীক্ষায় এটি প্রমাণিত হয়েছে এসব মিনারেল বাদামি চিনিতে খুব অল্প পরিমাণে থাকে, সুতরাং সাদা চিনির চেয়ে বাদামি চিনি উপকারী এমনটা নয়।

গবেষণায় দেখা গেছে, বাদামি চিনির ৯৫ শতাংশই সুক্রোজ (সাদা চিনি) ও ৫ শতাংশ মোলাসিজ বা উপরের আবরণ।অর্থাৎ সাদা চিনির মতোই এটিও শরীরের জন্য ক্ষতিকর।সুতরাং ডায়াবেটিক রোগী ও বেশি ওজনের মানুষদের জন্য বাদামি চিনিও ঠিক ততটাই ক্ষতিকর যতটা সাদা চিনি।

গবেষণা বলছে, সাদা ও বাদামি কোনো ধরনের চিনিই স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি নয়। তাই অতিরিক্ত চিনি খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক। দিনে যেসব কার্বোহাইড্রেট আপনি গ্রহণ করেন,তাতেই পর্যাপ্ত চিনি থাকে যা শরীরে চিনির চাহিদা মেটায়।আপনি যে পাস্তা,কোলা ও কোমল পানীয় কিংবা তাজা ফল খাচ্ছেন, সেগুলোর ভেতরই চিনি আছে। তাই আলাদা করে চিনি- বাদামি হোক বা সাদা, না খাওয়াই ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.