মুসলিম কন্যাকে প্রথম কুমারি পূজা শুরু করেন স্বামীজি। কোন রাজ্যের কন্যা ছিলেন তিনি?

কুমারি পূজা যেখানে একটি কন্যা শিশুকে দেবী রূপে পূজা করা হয়।এই পূজাটি প্রাচীনকালে বহুল প্রচালিত ছিল কিন্তু বর্তমানে খুবই বেশি প্রচলন নেই।এবং বর্তমান দিনে একটি ব্রাহ্মান কন্যাকে পূজা করা হয়ে থাকে।আমরা সবাই জানি যে স্বামী বিবেকানন্দ এই পূজাটির প্রচলন করেছিলেন।কিন্তু তিনি যখন এই পূজাটির প্রথম প্রচলন করেছিলেন ছিলেন তখন তিনি যেই কন্যাকে দেবীর রূপ হিসাবে পূজা করেছিলেন সেই কন্যা কিন্তু ব্রাহ্মন ছিলেন না।আপনারা যদি সেই কন্যা সম্পর্কে জানেন তাহলে আপনারা অবাক হয়ে যাবেন।তাহলে জেনে নিন স্বামী বিবেকানন্দ যেই কন্যাকে দেবী হিসাবে পূজো করেছিলেন সেই কন্যা সম্পর্কে অজানা তথ্য।

বেলুরমঠে কুমারি পূজার প্রচলন করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ।তবে তিনি প্রথম কুমারি পূজা করেছিলেন কাশ্মীরে। ১৮৯৮ সালে কাশ্মীরে ৭ বা ৮ বছরের একটি মুসলিম কন্যাকে দেবী রূপে পূজা করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ।এই কন্যাটির নাম ছিল  সাবিহা।এই মেয়েটি ছিলেন এক মাঝির কন্যা যাকে ঝিলাম নদীর তীরে দেবীরূপে  পূজা করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ।এবং আর পরে স্বামী বিবেকানন্দ বেলুরমঠে কুমারি পূজার প্রচলন করেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.