ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রন করতে পেঁয়াজ

আমাদের সবচেয়ে পরিচিত সবজি গুলির মধ্যে পেঁয়াজ অন্যতম।রান্নায় সাধারণ এই সবজিটি ব্যবহার নিমেষের মধ্যে পাল্টে দিতে পারে খাবারের স্বাদ ।পেঁয়াজের ব্যবহার আজ থেকে নয় সেই হাজার হাজার বছর আগে থেকেই চলে আসছে। তবে ঝাঝালো এই সবজিটি যে কেবল রান্নার স্বাদ ই বাড়ায় তাই নয় পেঁয়াজের রয়েছে নানা ঔষধি গুণ ও। এর পুষ্টিগুণ নেহাত কম নয়। পেঁয়াজে বিভিন্ন ভিটামিন,মিনারেল ফাইবার,ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি’ ও সি’ সহ নানা খনিজ রয়েছে ।

আসুন আজ জেনে নিই পেঁয়াজের নানা গুণের কথা

বিভিন্ন সংক্রমণের সুরক্ষা প্রদান করে

কাঁচা পেঁয়াজের গন্ধ অনেকের সহ্য হয় না ঠিকই তবে পেঁয়াজের মধ্য রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিসেপটিক,অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল পদার্থ ।এগুলি শরীরের যেকোনো রকম সংক্রমণে খুবই ভালো কাজ দেয় ।ফলে শরীরে যদি কোন প্রকার সংক্রমণ দেখা দেয় সে ক্ষেত্রে অল্প পরিমাণে কাঁচা পেঁয়াজ নিয়মিত খেলে খুব তাড়াতাড়ি মুক্তি পাওয়া যায় এই সংক্রমণ থেকে ।শুধু তাই নয় প্রতিদিন কাঁচা পেঁয়াজ খেলে তা শরীরের টক্সিন দূরীকরণে ও সাহায্য করে ।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে

আজকাল বয়স বাড়ার সাথে সাথে অনেকেই ডায়াবেটিসে ভুগছেন ।কিন্তু জানেন কি ডায়াবেটিসের সময় চিকিৎসকের পরামর্শ মতো যদি পেয়াজ খান তা থেকে দেহে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়ে এবং রক্তে শর্করার পরিমাণ থাকে সঠিক ।

-সর্দি গলা ব্যথা দূরীকরণে

হঠাৎ  সর্দি বা গলা ব্যথা কষ্ট পেলে আর হাতের সামনে কোন ওষুধ না থাকলে চিন্তার কোন ব্যাপার নেই ।অল্প পরিমাণ পেঁয়াজের রস মধু মিশিয়ে খেয়ে নিলে জ্বর সর্দি জাতীয় যে কোন সমস্যা সহজেই চলে যায় ।এছাড়া কাশি ও এলার্জির সমস্যাতেও পেঁয়াজের রস ভালো কাজ দেয়

দেহের তাপমাত্রা কমাতে

পেঁয়াজ শুধুমাত্র সর্দি এলার্জি প্রভৃতি সমস্যায় উপকারী তাই নয় দেহের তাপমাত্রা কমাতে ও খুব ভালো কাজ দেয় পেঁয়াজ ।জ্বরে শরীরের তাপমাত্রা অতিরিক্ত বাড়লে কয়েকটি পেঁয়াজ কুচি কপালে রাখলে কিছুক্ষণের মধ্যেই তাপমাত্রা কমতে শুরু করে ।

হজমশক্তি বাড়াতে

অবেলায় বেশি তেল মসলা খেয়ে নিলে হজমের সমস্যা দেখা যায় অনেক সময় ।এক্ষেত্রে হজম ক্ষমতা বাড়াতে প্রতিদিন অল্প পরিমাণ কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়া শুরু করলে শরীরে হজমের প্রয়োজনীয় এনজাইমের পরিমাণ বাড়ে ।ফলে খাবার সহজে হজম হয় ।

পোকামাকড় কামড়ালে

পোকামাকড় কামড়ালে সঙ্গে সঙ্গে ওষুধ না দিলে অনেক সময় তা থেকে ঘা হতে পারে ।এক্ষেত্রে হাতের সামনে ওষুধ না পেলে একটা পেঁয়াজ কেটে ভালো করে পেঁয়াজের রস সেখানে লাগালে ব্যথা বা চুলকানি সাথে সাথে কমে যায় ।

ট্যান রিমুভ করতে

পেঁয়াজের রস ট্যান রিমুভ করতে খুব ভালো কাজ দেয়।রোদ থেকে ঘুরে এসেছেন আর মুখটা কালো লাগছে ?এক্ষেত্রে কিছুটা পেঁয়াজ থেঁতো করে ভালো করে পেঁয়াজের রস ত্বকে লাগালে দেখবেন ত্বকের কালো ভাব অনেকটা কমে গেছে ।

ব্রণ ও নিরাময়

পেঁয়াজের রসে কেবলমাত্র ট্যান রিমুভ করে তাই নয় ত্বকে ব্রণের সমস্যা দূরীকরণে ও খুব ভালো কাজ দেয় পেঁয়াজের রস ।কিছুটা পেঁয়াজ থেঁতো করে ত্বকের যে অংশে ব্রণ হয়েছে তার ওপর মিশ্রণটি লাগালে ব্রন আস্তে আস্তে ছোট হয়ে আসবে এবং ক্রমে তা পুরো মিলিয়ে যাবে ।

ক্যান্সার প্রতিরোধে

ক্যান্সার প্রতিরোধে ও পেঁয়াজ অত্যন্ত ভালো কাজ দেয় ।নিয়মিত ডায়েটে কিছু পরিমাণ কাঁচা পেঁয়াজ রাখলে পেঁয়াজের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কোষের ডিএনএ কে ক্যান্সারের আক্রমণ থেকে প্রতিরোধ করে ।সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে পেঁয়াজের রস টেস্ট টিউবের টিউমার সেলকে ধ্বংস করে ।

হার্ট সুস্থ রাখতে

বয়সের সাথে সাথে হার্টের নানা সমস্যা দেখা যায় ।এক্ষেত্রে হার্ট ভালো রাখতে চাইলে প্রতিদিন একটি করে কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়ার অভ্যাস শুরু করুন ।কাঁচা পেঁয়াজ রক্তকে জমাট বাঁধতে দেয় না এবং রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় ।ফলে হার্ট থাকে সুস্থ

হাড় ভালো রাখতে

হার্টের সাথে সাথে হাড় ভালো রাখতে ও পেঁয়াজের গুরুত্ব অপরিসীম ।প্রতিদিন একটি করে কাঁচা পেঁয়াজ খেলে  অ্যাথেরসক্লেরোসিস এবং অস্টিওপোরোসিসের মতো রোগের হাত থেকে অনেকটা মুক্তি পাওয়া যায় ।

যৌন ক্ষমতা বাড়াতে

পেয়াজ যৌন ক্ষমতা বাড়াতেও সহায়তা করে ।সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন এক গ্লাস করে পেঁয়াজের রস খেলে তা যৌন ক্ষমতা অনেকটাই বাড়িয়ে ফেলতে পারে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *