শনিদেবের দৃষ্টি পড়াতে কেন শিব পুত্র গনেশের মস্তিস্ক আলাদা হয়েগেছিল জানা আছে?

নিউজ ডেস্কঃ দেবাদিদেব মহাদেব এবং মাতা পার্বতীর পুত্র গণেশ যাকে আমরা গণপতি এবং সিদ্ধিদাতাও বলে থাকি। আমরা সবাই জানি যে শনিদেবের দৃষ্টি অমঙ্গলজনক।আর এই দৃষ্টি যে শুধু মানুষের উপর পড়ে তা ঠিক নয় এই দৃষ্টি দেবতাদের উপর পড়লেও দেবতাদেরও ক্ষতি হবে যার উদাহরন হল গণেশ।অর্থাৎ গণেশ উপর শনিদেবের দৃষ্টি পড়েছিল যার জন্য গণেশ কি হয়েছিল এবং কেনই বা শনিদেবের দৃষ্টি গনেশের উপর পড়েছিল জানেন কি?

পৌরাণিক কাহিনি অনুসারে,  শিব ও পার্বতী পুত্রলাভের আশায় বিষ্ণুপূজা করেছিলেন। এই পূজাতে বিষ্ণুদেব তুষ্ট হয়ে বলেছিলেন যে তিনি পার্বতীর পুত্ররূপে অবতীর্ণ হবেন। এরপর মাতা পার্বতীর গর্ভ থেকে একটি পুত্রের জন্ম হয়েছিল।এই পুত্রের জন্ম উপলক্ষে  সকল দেবদেবী উৎসব করছিলেন।এবং সেই উৎসবে সূর্যের পুত্র শনি উপস্থিত ছিলেন কিন্তু  শনিদেব ওই  শিশুটির দিকে তাকাতে ইতস্তত করছিলেন।

কারণ শনির দৃষ্টি অমঙ্গলজনক। কিন্তু পার্বতীর কথাতে শনি শিশুটির দিকে তাকাতে বাধ্য হয়েছিলেন।আর শনিদেবে তাকানোতে মুহুর্তের মধ্যে শিশুর মস্তক ছিন্ন হয়ে গোলোকেচলে যায়।এরফলে শিব ও পার্বতী শোকাহত হয়ে পড়েছিলেন।তখন বিষ্ণুদেব গরুড়ের পিঠে চড়ে পুষ্পভদ্র নদীর তীরে এসে উপস্থিত হয়ে  সেখান থেকে একটি বাচ্চা হাতির মাথা নিয়ে ফিরে আসেন। এরপর মাতা পার্বতী শিশুর মুণ্ডহীন দেহে  ওই হাতির মাথাটি বসায় এবং তারপর ওই শিশুটি  প্রাণ ফিরিয়ে আনা হয়।আর তখন এই শিশুর নাম রাখা হয় গণেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *