জানেন কি দেবী সরস্বতীর কারনেই ভারতবর্ষের এই মন্দিরে পূজা করা নিষেধ! কিন্তু কেন?

নিউজ ডেস্কঃ ঈশ্বরের আশীর্বাদ পাওয়ায় আশায় সকল মানুষ ঈশ্বরের দর্শন বিভিন্ন ধার্মিক জায়গায় যায়।বলা হয়ে থাকে যে ভগবানের কাছে তার সকল ভক্তরা সমান।কিন্তু তাও কিছু কিছু মন্দির আছে যেখানে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ কিন্তু মহিলাদের প্রবেশিধিকার আছে।তবে কেন ভগবানের দর্শনে এইধরনের ভেদাভেদ নারী ও পুরুষদের মধ্যে।এবং কোন কোন মন্দিরে এই রকম নিয়ম আছে জেনে নিন।        

রাজস্থানের পুষ্কর যেটিকে আমরা প্রজাপতি ব্রহ্মার মন্দির বলে জানি।বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের সৃষ্টিকর্তা ব্রহ্মার পূজা পৃথিবীতে সেভাবে প্রচলন নেই বললেই চলে।তাই ব্রহ্মার মন্দিরের সংখ্যাও খুবই সীমিত।কিন্তু এইসব মন্দিরের মধ্যে একটি হল রাজস্থানের  পুষ্কর হ্রদের পাশেই অবস্থিত। সম্ভবত সারা বিশ্বে এটি একমাত্র জায়্গা যেখানে ব্রহ্মা পূজিত হন। কিন্তু প্রজাপতি ব্রহ্মার এই মন্দিরের গর্ভগৃহে কোনও পুরুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ | পৌরাণিক কাহিনী অনুযায়ী বলা হয় যে দেবী সরস্বতী দ্বারা অভিশপ্ত এই মন্দিরে কোনো বিবাহিত পুরুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ।বলা হয় যে এখানে পৌরাণিক কালে পুষ্কর জলাশয়ের তীরে যজ্ঞ করছিলেন আয়োজন করেছিলেন প্রজাপতি ব্রহ্মা।এই যজ্ঞ সময় ব্রহ্মাদেবের  অর্ধাঙ্গিনী দেবী সরস্বতী সময় মতো উপস্থিত না হতে পারায় ব্রহ্মা দেবী গায়ত্রীকে স্ত্রী হিসাবে গ্রহন করে যজ্ঞে  বসে যজ্ঞ সম্পূর্ণ করেন। এটি দেখে দেবী সরস্বতী  ক্রুদ্ধ হয়ে যান এবং তখন দেবী সরস্বতী শাপ দেন যে মন্দিরে কোনো বিবাহিত পুরুষ প্রবেশ করলে, তার বিবাহিত জীবন নষ্ট হয়ে যাবে।আর এই থেকেই এই মন্দিরে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *