লিভার বা পাকস্থলীর কঠিন অসুখ সারাতে দারুন কাজ করে কুলেখাড়া

অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতা প্রতিরোধ করে

কুলেখাড়া  অ্যানিমিয়া প্রতিরোধ করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। এই গাছের পাতা ও কাণ্ড খেলে বা সেটার রস পান করলে রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়।তাই যারা অ্যানিমিয়ার সমস্যা ভোগেন তাদের পক্ষে কুলেখাড়া খুবই উপকারি।কারন কুলেখাড়া পাতা খেলে তাঁদের শরীরে হিমোগ্লোবিন ও হোয়াট ব্লাড সেল দুটোই বৃদ্ধি পায়।

লিভার বা পাকস্থলীর সুরক্ষা দেয়

কুলেখাড়া যে শুধুমাত্র শরীরে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে তা নয় এটি লিভারের সুরক্ষাও প্রদানেও সাহায্য করে। কারন  কুলেখাড়া পাতায় রয়েছে বেশ কিছু পাচক বা এনজাইম যা লিভার বা পাকস্থলী কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

কিডনির পাথর ভেঙে দেয় ও গলিয়ে দেয়

কুলেখাড়াতে রয়েছে এমন এক ধরনের এনজাইম যা কিডনির ভিতরে জমে থাকা স্টোন বা পাথর ভেঙে দিতে সাহায্য করে।কুলেখাড়া এই পাথরকে  প্রথমে ছোট করে দেয় তারপর সেটা ধীরে ধীরে গলিয়ে দিতে শুরু করে। এবং তারপর এটা শরীর থেকে মল বা মূত্র রূপে বেরিয়ে আসে।  

শরীরের কোষে পুষ্টি যোগায়

কুলেখাড়ায় রয়েছে নানা ধরনের উপাদান যেমন-মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট, অনেক ক্ষারীয় উপাদান এবং এমন কিছু খনিজ নুন।আর এই সব উপদান কোষের সঠিক বিকাশ ও বৃদ্ধির জন্য খুবই  প্রয়োজন।এছাড়াও এটি  শরীরের কোষে সঠিক পুষ্টি সরবরাহ করতে সক্ষম।

শারীরিক শক্তি বৃদ্ধি করে

কুলেখাড়া  আমাদের শরীরের প্রতিটি কোষে পুষ্টি  সরবরাহ করে যার ফলে আমাদের শারীরিক শক্তিও  বৃদ্ধি পায়। এছাড়াও কুলেখাড়া রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বৃদ্ধি করার পাশাপাশি রক্ত পরিশ্রুতেও সাহায্য করে। যার ফলে কুলেখাড়ার রস আমাদের শরীরে এনার্জি মাত্রাটা অনেকটাই বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *