ত্বকের জ্বালা বা গোড়ালি ফাটলে কিভাবে সাহায্য করে গ্লিসারিন?

শীতকালে বাতাসে আদ্রতার অভাবে আমাদের সকলেরই ত্বক হয়ে ওঠে শুষ্ক ও রুক্ষ। তবে যাদের ত্বক সাধারণভাবেই শুষ্ক সবচেয়ে বেশি শুষ্ক ত্বকের সমস্যায় ভোগেন তারা ।আপনিও যদি তাদের মধ্যেই একজন হয়ে থাকেন তবে চিন্তা নেই কোনরকম।দামি প্রোডাক্ট ব্যবহার ছাড়াই  প্রাকৃতিক ভাবে নরম,মসৃণ ও উজ্জ্বল ত্বক পেতে পারেন আপনিও গ্লিসারিন ব্যবহার করে ।

আসুন জেনে নেওয়া যাক শুষ্ক ত্বকের যত্নে কিভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে গ্লিসারিন

1)প্রত্যেক দিনের খাটাখাটনির পর বাড়ি ফিরে আমরা প্রত্যেকেই প্রথমেই ক্লিনজিং মিল্ক বা ফেসওয়াশ ব্যবহার করে ধুয়ে ফেলি মুখ ।এতে মুখে জমে থাকা ধুলো-ময়লা ঘাম প্রভৃতি দূর হয় ঠিকই তবে তার সাথে এটি ত্বককে করে তোলে খানিকটা শুষ্ক ও ।আপনার যদি শুষ্ক ত্বক থেকে থাকে তবে ক্লিনজার ব্যবহারের পরিবর্তে ব্যবহার শুরু করুন গ্লিসারিনের ।এটি সহজেই তেল, ময়লা দূর করে মুখ থেকে।সেইসাথে এটি ত্বককেও রাখে আদ্র ।

2)ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখতে ও ত্বককে মসৃণ রাখতে প্রত্যেকেই ময়েশ্চরাইজার ব্যবহার করি আমরা। তবে শুষ্ক ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে অনেক সময় মেলে না কোন ফল।তাই তার বদলে ব্যবহার শুরু করুন গ্লিসারিনের।এটি ত্বকের কোষে থাকা জল কে ধরে রাখে ফলে ত্বক থাকে আদ্র ।

3)গ্লিসারিন ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করতে না চাইলে টোনার হিসাবেও ব্যবহার করতে পারেন ।প্রতিদিন রাতে শোয়ার আগে গোলাপ জলের সাথে গ্লিসারিন মিশিয়ে তা টোনার হিসেবে এপ্লাই করতে পারেন ত্বকে। দেখবেন ত্বক থাকবে নরম,উজ্জ্বল এবং ত্বকের যাবতীয় শুষ্কতাও হয়ে যাবে দূর ।

4)শুষ্ক ত্বকে অনেক সময় ফুসকুড়ি বা জ্বালা ভাব দেখা দিতে পারে। এই ধরনের ছোটখাটো সমস্যার সমাধানের খুব ভালো কাজ দেয় গ্লিসারিন ।ফুসকুড়ি বা জ্বালাভাব ত্বকের যে অংশে দেখা যাচ্ছে সেখানে অল্প পরিমাণ গ্লিসারিন লাগিয়ে  অপেক্ষা করুন কিছুক্ষণ।দেখবেন সমস্যা সমাধান হয়েছে কিছুক্ষণের মধ্যেই।

5)গোড়ালি ফাটার সমস্যায় অনেকেই ভোগেন ।ভ্যাসলিন, বিভিন্ন ক্রিম ব্যবহার করেও অনেক সময় মেলেনা কোন সমাধান। কিছুদিনের জন্য সমস্যা কমলেও কয়েকদিন পরেই আবার সমস্যা ফিরে আসে। এই ক্ষেত্রে নিয়মিত ব্যবহার শুরু করুন গ্লিসারিনের ।ঘুমানোর আগে ভালো করে পা ঘষে পরিষ্কার করে গোড়ালিতে গ্লিসারিন লাগিয়ে মোজা পড়ে বা ওই অংশটি ঢাকা দিয়ে ঘুমিয়ে পড়ুন রাতে। পরদিন সকালবেলা উঠে দেখবেন গোড়ালির ফাটা ভাব কমে গেছে অনেকটাই।নিয়মিত ব্যবহার করলে ত্বক হয়ে উঠবে একেবারে নরম এবং দূর হবে পা ফাটা  ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *