ডার্বির মহরা সবুজমেরুন শিবির জুড়ে

স্পোর্টস ডেস্কঃ আইলিগের প্রথম পর্বের ডার্বিতে ৩-২ গোলে ইস্টবেঙ্গলের কাছে হারতে হয়েছিল মোহনবাগানকে। তখন কোচ হিসাবে ছিলেন শঙ্করলাল চক্রবর্তী। আর ফিরতি পর্বের দায়িত্বে কোচের হট সীটে খালিদ জামিল। যিনি গতবছর ইস্টবেঙ্গলের দায়িত্বে ছিলেন। এবার সেই পুরনো দলের বিরুদ্ধেই তিন পয়েন্ট সংগ্রহ করে খেতাব দৌড়ে পালতোলা নৌকা ভাসিয়ে রাখাই লক্ষ্য খালিদের। ১৩ ম্যাচে ২১ পয়েন্ট সংগ্রহ করে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে গঙ্গাপারের ক্লাবটি। তাই ডার্বি ম্যাচটা সবুজমেরুন শিবিরের কাছে অনেকটা মরনবাচন লড়াই।

ডু অর ডাই ম্যাচে ডিফেন্স সংগঠনের উপরেই বেশি জোড় দিচ্ছেন বাগানের থিংক ট্যাঙ্ক। আসলে দলের দায়িত্ব নিয়ে শেষ দুটি ম্যাচে গোল খাওয়া বন্ধ করলেও ১৩ ম্যাচে ১৪ গোল হজম করাটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছেনা খালিদ। প্রতিপক্ষ দলে এনরিকে, কোলাডো, জবি জাস্টিনের মতো নামী স্ট্রাইকার আছে। তাই ডিফেন্স নিয়ে বাড়তি সতর্ক বাগান কোচ। এমনকি প্রতিপক্ষ দলের সেট পিস মুভমেন্টকেও সমীহ করেছেন খালিদ। আসলে লালরিন্দিকা, ডিকার বিপজ্জনক সেন্টার গুলো আটকানোই লক্ষ্য বাগান কোচের। তাই কিংসলে, কিমকিমা, অরিজিত বাগুইকে নিয়ে বেশ কিছুক্ষন আলাদা অনুশীলন করালেন বাগান কোচ। ডার্বিতে ডিফেন্স অটুট রাখার জন্য নানা অনুশীলনও করালেন আইজলকে আইলিগ চ্যাম্পিয়ন করার কোচ।

চোট সারিয়ে অনুশীলনে ওমর,ইউতার পাশাপাশি পিন্টু মাহাতো। তবে ডার্বিতে ওমর, ইউতা খেলা নিশ্চিত হলে প্রথম একাদশে সম্ভবত ঠাই হচ্ছেনা পিন্টুর। গোলের জন্য খালিদের ভিরসা নর্ডির পাশাপাশি হেনরি কিসেকা-দিপান্ডা ডিকা জুটি। তবে শুরু থেকেও হেনরি-ডিকাকে মাঠে নামাবে কিনা তা নিয়ে রয়েছে ধোঁয়াশা। সবমিলিয়ে বসন্ত না এলেও বাগানে এখন বসন্তের হাওয়া চোট মুক্ত হয়ে ডার্বি ম্যাচে খেলতে নামার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *