মেসি মাসিয়া অব্যাহত। ফের জয় বার্সেলোনার

স্পোর্টস ডেস্কঃ গেতাফের বিরুদ্ধে ১-২ গোলে জয় বার্সেলোনার। মেসি ছাড়া যে বার্সেলোনার গতি নেই তা আরও একবার প্রমান করলেন আর্জেন্টাইন তারকা। গেতাফের বিরুদ্ধে জয় পেলেও তা যে ভাগ্যের জোরে পেয়েছে তা হয়ত এক ছোট্ট ফুটবল সমর্থকেরও অজানা নয়।

মেসি যে ম্যাজিক যে কোনও সময় দেখাতে পারেন তা আরও একবার প্রমান করলেন এদিনের ম্যাচে। নইলে গোলকিপারকে ঐরকম বোকা বানিয়ে গোল দেওয়া অসম্ভব। আর শুধু তাই নয় গোলকিপারকে বোকা বানানোটা যদি ম্যজিক হয় তাহলে গোল দেওয়ার ফাইনাল টাচটি ছিল বিজ্ঞানকে বুড়ো আঙুল দেখানো। কারন চুল পরিমান জায়গা এদিক ওদিক হলে বার্সার প্রথম গোলটি হওয়া অসম্ভব ছিল। এক কথায় বললে মেসিকে যদি ম্যাজিশিয়ান বা ফুটবলের ডক্টরেট তকমা দেওয়া হয় তা হলে হয়ত মন্দ হবেনা। কারন রবিবার রাতের গোলের পর মেসিকে দুটি উপাধি দেওয়া যেতেই পারে।

প্রথমার্ধের ২০ মিনিটের মাথায় মেসির অনবদ্য গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। আর ঠিক তার ১৯ মিনিটের মাথায় মেসির ফ্রি কিক থেকে গোল করেন লুইস সুয়ারেজ। খেলার প্রথমার্ধেই খেলার ফলাফল ঠিক হয়ে যায়। কারন দ্বিতীয়ার্ধে কোনও পক্ষই গোল করতে সক্ষম হয়নি। প্রথমার্ধের ৪৩ মিনিটে গেতাফের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন জেইম মাতা।

এদিনের ম্যাচে প্রথমার্ধে বার্সেলোনা খেললেও দ্বিতীয়ার্ধে গেতাফের দখলেই ছিল ম্যাচ। দ্বিতীয়ার্ধে একের পর এক আমক্রমন উড়ে আসে বার্সার ডিফেন্সে। বার্সার গোলরক্ষক টের স্টেগেনের সৌজন্যে গোল করতে সক্ষম হয়নি গেতাফের প্লেয়াররা। দ্বিতীয়ার্ধে সব ঠিকঠাক থকালে হয়ত বার্সাকে কমপক্ষে হাফ ডজন গোল হজম করতে হত। এবংএদিনের খেলার পর একটা কথা স্পষ্ট যে বার্সার ডিফেন্স নড়বরে না থাকলেও ডিফেন্ডারদের বোঝাপড়া এবং অনেক খামতি আছে। যার ফলে বার্সাকে বড় মাশুল দিতে হতে পারে বার্সেলোনাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *